ফ্যাট কোমল পানীয়তেও!

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১০ মে: বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ওজন বেড়ে যাওয়া নিয়ে চিন্তিত হয়ে অনেকেই ‘ডায়েট কোমল পানীয়’ পান করে থাকেন। কিন্তু ডায়েট সোডা বা এমন কোমল পানীয় কি আসলেই বয়স্কদের ওজন ঠিক রাখার ক্ষেত্রে সহায়ক? নতুন এক গবেষণা বলছে এতে আসলে তেমন কোনো উপকারই পাওয়া যায় না। নিউ ইয়র্ক থেকে আইএএনএস এ খবর জানিয়েছে।diet
যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস বিশ্ববিদ্যালয়ের হেলথ সায়েন্স সেন্টারের গবেষকেরা সম্প্রতি ডায়েট কোমল পানীয় নিয়ে এক গবেষণা করেছেন। এতে ৭৪৯ জন নারী-পুরুষের স্বাস্থ্যতথ্য ও জীবনযাপনের নানা তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করে ৯ বছর ধরে তাঁদের পর্যবেক্ষণ করেছেন গবেষকেরা। নমুনা হিসেবে গ্রহণ করা এই ব্যক্তিদের সবার বয়স ৬৫ বছরের বেশি।
অংশগ্রহণকারীরা কী পরিমাণ কোমল পানীয় পান করেন এবং সেগুলোর কয়টা সাধারণ আর কয়টা ডায়েট পানীয় তার হিসাব নিয়েছেন গবেষকেরা। গবেষণার শুরুতে গ্রহণ করা তথ্যের সঙ্গে পরবর্তী সময়ে আরও তিনবার এই হিসাব নেওয়া হয়। গবেষণাপত্রটির প্রধান রচয়িতা শ্যারন ফাউলার বলেন,‘অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে যাঁরা কোনো ডায়েট সোডা পান করেননি তাঁদের কোমরের মাপ এই সময়ে এক ইঞ্চির চেয়েও কম বেঙেছে। আর যাঁরা গঙে দিনে একটির চেয়ে কম এমন পানীয় পান করেছেন তাঁদের কোমর বেঙেছে প্রায় দুই ইঞ্চি। যাঁরা গঙে দিনে একটির চেয়ে বেশি ডায়েট সোডা পান করেছেন এ সময়ে তাঁদের কোমর বেঙেছে প্রায় তিন ইঞ্চি।’
গবেষণার এই ফল প্রবীণ ব্যক্তিদের স্বাস্থ্য বিষয়ে নতুন করে উদ্বেগ বাড়িয়েছে। কেননা, শরীরে মেদ জমা ও কটিদেশ স্ফীত হওয়ার সঙ্গে হজমের সমস্যা, ডায়াবেটিস, হার্ট অ্যাটাক, স্ট্রোক, ক্যানসারসহ মৃত্যুর আশঙ্কা জড়িয়ে আছে।
গবেষণা প্রতিবেদনটি আমেরিকান গেরিয়াট্রিকস সোসাইটির সাময়িকীতে প্রকাশিত হয়েছে। তবে, স্বল্প সংখ্যক নমুনা নিয়ে পরিচালিত এই গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের অন্যান্য স্বাস্থ্যঝুঁকিকে কতটা গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে সে বিষয়টি স্পষ্ট নয়। কিন্তু ডায়েট কোমল পানীয়কে নিরাপদ মনে করে অতিরিক্ত মাত্রায় সেসব পান করা যে ঝুঁকিমুক্ত নয় সে বিষয়টি এতে স্পষ্ট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*