প্রশাসনের তিন স্তরে পদোন্নতির প্রক্রিয়া প্রায় চূড়ান্ত

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : গত বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্যসচিবের governপদ শূন্য হয়েছে। তাছাড়া আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার অবসরে যাচ্ছেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব মনজুর হোসেন। এই দুটি পদে আজই নতুন সচিব নিয়োগ দেওয়া হতে পারে। একে কেন্দ্র করে সচিব পদে বড় ধরনের একটি পরিবর্তনেরও সম্ভাবনা রয়েছে। এদিকে প্রশাসনে ব্যাপকভিত্তিক পদোন্নতির জন্য গত ১৫ জানুয়ারি সুপিরিয়র সিলেকশন বোর্ডের (এসএসবি) বৈঠক শুরু হয়। সেই থেকে গত এক মাস ধরে থেমে থেমে বৈঠক চলছে। আজ সোমবারও বৈঠক ডাকা হয়েছে। তিন স্তরে পদোন্নতির এই প্রক্রিয়া প্রায় চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছেছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। সূত্র জানায়, অতিরিক্ত সচিব, যুগ্মসচিব, উপসচিব এই তিনটি পর্যায়ে বর্তমানে প্রায় ১ হাজার ৫ কর্মর্কর্তা পদোন্নতির বিবেচনায় আসছেন। কিন্তু, এসএসবি’র বৈঠকে আলোচনা এবং পদোন্নতির যে পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে তাতে তিন স্তরে হয়তো সর্বোচ্চ ৭শ’ কর্মকর্তা পদোন্নতি পাবেন। বাকি প্রায় ৮শ’ কর্মকর্তা পদোন্নতি বঞ্চিত হবেন। আর এ কারণে পদোন্নতির আশায় কর্মকর্তাদের মধ্যে ব্যাপক লবিং-গ্রুপিং চলছে এখন। জানা গেছে, অতিরিক্ত সচিব পদোন্নতির ক্ষেত্রে ’৮৫ ব্যাচের কর্মকর্তাদের নতুন করে পদোন্নতির বিবেচনায় আনা হয়েছে। এর আগের অর্থাৎ লেফট আউট আছেন প্রায় ৩শ’ যুগ্মসচিব, যারা ইতিপূর্বে পদোন্নতি বঞ্চিত হয়েছিলেন। এবার ’৮৫ ব্যাচের শেষ পর্যন্ত অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতির বিবেচনায় আনা হচ্ছে। যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতির জন্য ১০ম ব্যাচ পর্যন্ত বিবেচনায় আনা হচ্ছে। উপসচিব পদে নতুন করে বিবেচনায় আসছে ২০তম ব্যাচ। গত বৃহস্প্রতিবার অনুষ্ঠিত এসএসবি বৈঠকে উপসচিব পদে পদোন্নতির আলোচনা শেষ হয়েছে। এর আগে অতিরিক্ত সচিব ও যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতির আলোচনা শেষ হয়। আজকের এসএসবি বৈঠকে সবগুলোর ওপর পুনঃআলোচনা হবে। সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, দেশের রাজনৈতিক অস্থিতিশীল পরিস্থিতির কারণে এই পদোন্নতির ক্ষেত্রে কিছুটা ‘ধীরে চলো’ নীতি অনুসরণ করা হচ্ছে। লাগাতার বৈঠক করে পদোন্নতির তালিকা চূড়ান্ত করে রাখা হচ্ছে, যাতে যে কোনো সময় আদেশ জারি করা যায়। সূত্র : শীর্ষ নিউজ ডটকম ওয়ান নিউজ বিডি

Leave a Reply

%d bloggers like this: