পেট ভালো রাখার সহজ উপায়

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৬ ডিসেম্বর ২০১৭, মঙ্গলবার: খাওয়ার পর বা খাওয়া শেষ হওয়ার ঘণ্টাখানেক পরও মনে হতে পারে খাবার হজম হয়নি। তার মানে আপনি হজমের সমস্যায় ভুগছেন। হজমের নানা সমস্যা ও তা থেকে প্রতিকার পাওয়ার উপায় সম্পর্কে জানিয়েছেন হার্ভার্ড মেডিক্যাল স্কুলের বিশেষজ্ঞরা। যদি আপনি ভারী ভারী এবং অস্বস্তি বোধ করেন, অথবা জ্বালা বোধ করেন, বা হয়তো আপনার গা-গোলানো, বমি বোধ ভাব হচ্ছে! তখনই বুঝবেন আপনার পেট খারাপ বা বদ হজম হয়েছে। সঠিক কারণ জানা না থাকলে ডাক্তাররা এটাকে ‘ডিসপেপসিয়া’ অথবা ‘বদ হজম’ বলে থাকেন।
পেটে দীর্ঘক্ষণের ব্যথা বা অজানা কারণে অস্বস্তিকে ডাক্তারি ভাষায় বলা হয় ‘ফাংশনাল ডিসপেপসিয়া’। ফাংশনাল ডিসপেপসিয়ার মূল কারণ অস্বাস্থ্যকর খাবার। অনেক সময় খেতে খেতেই শুরু হয়ে যায় অস্বস্তি, বাকিদের খাওয়ার আধঘণ্টা পরে হতে থাকে। তিন মাসের মধ্যে মাঝেমাঝেই ফিরে আসার প্রবল সম্ভবনা এই রোগের। আপনি যদি ফাংশনাল ডিসপেপসিয়ায় ভোগেন, তাহলে আপনি একা নন। মোটামুটি ভাবে জনগণের ২৫% আক্রান্ত, পুরুষ ও নারীরা সমানভাবে। ১০% আমেরিকান তাদের জীবনকালে একসময় পেপটিক আলসার বাধিয়ে থাকে। ফাংশনাল ডিসপেপসিয়ার কোনো নিশ্চিত চিকিৎসা না থাকাটা, তার কারণ না জানতে পারার থেকেও খারাপ।
জেনে নিন পেট ভালো রাখার কয়েকটি উপায়:
– বোঝার চেষ্টা করুন কোন কোন খাবারে আপনার বদ হজম হয়, সেসব খাবার এড়িয়ে চলুন।
– কিছুক্ষণ পর পর অল্প পরিমাণে খাবেন। খাবার সম্পূর্ণভাবে ধীরে ধীরে চিবিয়ে খান।
– ধূমপান, হুটপাট করে খাওয়া, চুইং গাম এবং কোল্ড ড্রিঙ্কস পান করা থেকে বিরত থাকুন।
– দুশ্চিন্তা করবেন না। রিলেক্সেসান থেরাপি, কগনিটিভ বিহেভেরিয়াল থেরাপি বা ব্যায়াম চেষ্টা করুন। অ্যারোবিক ওয়ার্কআউট সপ্তাহে ৩-৫ বার করলে উপকার পাবেন। তবে খাওয়ার পরেই ব্যায়াম করবেন না।
– কাজের ফাঁকে ফাঁকে শরীরকে আরাম দিন।
– রাতের খাবার খাওয়ার দুই ঘণ্টা পর ঘুমাতে যান।
– ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখুন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: