পাকিস্তান যাচ্ছে বাংলাদেশের নারী ক্রিকেট দল

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : বাংলাদেশের নারী ক্রিকেট দল আগামী মে মাসে পাকিস্তান সফরে যাচ্ছে বলে নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। বিসিবির নারী ক্রিকেট বিষbangladesh_cricket_women_bcbয়ক কমিটির চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল চৌধুরী বলেছেন, বাংলাদেশ থেকে একটি নারী ক্রিকেট দল পাঠানো হবে। তবে সেটি জাতীয় দল হবে কিনা সে বিষয়ে এখনো তারা সিদ্ধান্ত নেননি। নিরাপত্তাজনিত কারণে গত ২০০৯ সাল থেকেই টেস্ট খেলুড়ে আন্তর্জাতিক দলগুলো পাকিস্তান সফরে যাচ্ছে না। পাকিস্তান দলের সাবেক অধিনায়ক আসিফ ইকবাল বলছেন, এ সফরটি পাকিস্তান ক্রিকেটের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। টুর্নামেন্টে পাকিস্তানের জাতীয় দল অংশগ্রহণ করলে বাংলাদেশও জাতীয় দল পাঠাবে নতুবা বিসিবি একাদশ নামে একটি দল পাঠানো হবে বলে জানান বিসিবি কর্মকর্তা। ২০০৯ সালে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের ওপর সন্ত্রাসী হামলার পর থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট দলগুলো পাকিস্তান সফরে যাওয়া বন্ধ করে দেয়। এর মধ্যে ২০১৩ সালে আফগানিস্তান এবং ২০১৪ সালে কেনিয়া পাকিস্তান সফরে যায়। তবে বড় কোন দল এর মধ্যে সেখানে যায়নি। এর আগে ২০১৩ সালে বাংলাদেশ জাতীয় দল পাকিস্তানে যাবার সম্ভাবনা তৈরি হলেও শেষ পর্যন্ত নিরাপত্তাজনিত কারণে সেই সফর বাতিল করা হয়। মি. চৌধুরী বলছেন, এবারও তারা একটি নিরাপত্তা পর্যবেক্ষক দল পাঠাবে। তিনি বলেন, “এর আগে নারী ফুটবল দল এবং ভলিবল দল পাকিস্তানে খেলে এসেছে, কোন সমস্যা হয়নি।” টুর্নামেন্টটিতে অংশ নেয়ার জন্য শ্রীলঙ্কা এবং ইংল্যান্ডকেও আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বলে জানান মি. চৌধুরী। তবে তারা অংশ নেবে কিনা তা এখনো নিশ্চিত নয়। বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের অধিনায়ক সালমা খাতুন বলছেন, তারা সফরের বিষয়ে শুনেছেন, তবে আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের এখনো জানানো হয়নি। নারী প্রিমিয়ার লীগ শেষ হলে হয়তো তাদের ক্যাম্পের জন্য ডাকা হতে পারে। এর আগে পুরুষ জাতীয় দল পাঠানোর বিষয়ে আপত্তি জানিয়েছিল বাংলাদেশের ক্রিকেট ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন। পাকিস্তানে বাংলাদেশের নারী ক্রিকেট দলের এ সফর দেশটির ক্রিকেটের জন্য বেশ ইতিবাচক হবে বলে মনে করছেন পাকিস্তান দলের সাবেক অধিনায়ক আসিফ ইকবাল। তিনি বলেন, “একটা প্রভাব থাকবেই। কারণ এর মধ্যে পাকিস্তানের সাথে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট দলগুলোর তেমন একটা পারস্পরিক যোগাযোগ হয়নি। অন্যান্য কিছু খেলা হয়েছে, কিন্তু ক্রিকেটটা তেমন হয়নি। আন্তর্জাতিক একটি দল পাকিস্তান সফরে গেলে সেটা খুব ভাল হবে। তবে তাদেরকে কেমন অভ্যর্থনা দেয়া এবং সফরের পর অন্যান্য দলগুলোর কি প্রতিক্রিয়া হবে, সেটা আমাদের দেখতে হবে। পাকিস্তানের জন্য এ সফর খুবই গুরুত্বপূর্ণ।” এ সফরের পর হয়তো অন্যান্য দলও পাকিস্তান সফরের বিষয়ে আগ্রহী হয়ে উঠবে বলে আশা করছেন আসিফ ইকবাল। বাংলাদেশ নারী দলের সফর ছাড়াও মে মাসে জিম্বাবুয়ের জাতীয় দলও পাকিস্তান সফর করতে পারে বলে এরই মধ্যে জানিয়েছেন পিসিবির চেয়ারম্যান শাহরিয়ার খান। আর এবছরের শেষ নাগাদ শ্রীলঙ্কারও পাকিস্তান সফরের সম্ভাবনা রয়েছে। সূত্র : বিবিসি

Leave a Reply

%d bloggers like this: