‘নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের ১১ দফা বাস্তবায়নে এগিয়ে আসুন’

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১৪ এপ্রিল ২০১৯ ইংরেজী, রবিবার: বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিটির উদ্যোগ নৌমান শ্রমিকদের এক সভা আজ ১৪ এপ্রিল বিকাল ৪ টায় বাংলাদেশ লাইটারেজ শ্রমিক ইউনিয়ন পানগলি, বাংলা বাজার, চট্টগ্রামস্থ অফিস কার্যালয়ে আব্দুর রহিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভায় বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশ লাইটারেজ শ্রমিক ইউনিয়নের নেতা মোঃ জসিম উদ্দিন মাষ্টার আব্দুল মান্নান মাষ্টার মোঃ নবী আলম মাষ্টার, আলতাব হোসেন ড্রাইভার, আব্দুল্লাহ্ ড্রাইভার, করিমুল হক ড্রাইভার, জিয়াউদ্দিন বাবলু মাষ্টার, বাংলাদেশ নৌযান ম্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সম্পাদক মোঃ খোরশেদ আলম, চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিটির নেতা আনোয়ার হোসেন ড্রাইভার, মাসুম মাষ্টার, শফিউল আলম ও বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘের চট্টগ্রাম জেলা সাধারণ সম্পাদক মোঃ মামুন। সভায় বক্তাগণ বলেন- নৌযান শ্রমিকদের সারা পৃথিবীতে খাদ্য ভাতা দিয়ে থাকে কিন্তু বাংলাদেশে মালিকরা খাদ্য ভাতা প্রদান করেনা। নদী পথে চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসীদের দৌরাত্ব নৌযান শ্রমিকরা অতিষ্ট হয়ে পড়েছে। মালিকদের একটি অংশ মাষ্টার, ইনচার্জ ভাতা, এন্ডোর্সম্যান্ট ভাতা ও টেকনিক্যাল ভাতা প্রদান করছেনা। নদীর নাব্যতা কমে যাওয়ায় নদীপথ সংকুচিত হয়ে পড়েছে। নৌযান শ্রমিকদের চাকরি নিরাপত্তা, সামাজিক নিরাপত্তা ও কর্মক্ষেত্রে নিরাপত্তা নাই। উল্লেখিত বিষয়সহ নৌযান শ্রমিকদের ১১ দফা দাবী ৩০/০৪/২০১৮ইং তারিখ মালিক সরকারসহ সংশ্লিষ্ট সকলের নিকট দাবী উপস্থাপন করিলেও মালিক সরকার পক্ষ কর্ণপাত না করায় ২৭/০৯/২০১৮ইং তারিখ লাগাতার কর্মবিরতি ঘোষণা করা হলে ২৫/০৯/২০১৮ইং তারিখ নৌপরিবহন অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের আহ্বানে সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষকে নিয়ে ১১ দফার মিমাংসার বিষয়ে সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত হয়। উক্ত সিদ্ধান্ত দীর্ঘদিনেও বাস্তবায়ন করা হয় নাই। ফলে শ্রমিকদের মধ্যে চরম অসন্তোষ দেখা দেওয়ায় বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের পক্ষ থেকে ১৪/০৪/২০১৯ইং তারিখ দিবাগত রাত ১২.০১ মিনিট থেকে সারাদেশে নৌযানে লাগাতার কর্মবিরতির আহ্বান করেন।
উল্লেখিত আন্দোলন সফল করতে ১৩/০৪/২০১৯ইং তারিখ কেন্দ্র ঘোষিত সারাদেশে নৌযান শ্রমিকদের সমাবেশ বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। উক্ত সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল করতে গেলে বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের নারায়নগঞ্জ, আঞ্চলিক শাখার সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর মাষ্টারকে নারায়নগঞ্জ থানা পুলিশ মিথ্যা মামলায় গ্রেফতার করে তাকে হাজতে বন্ধ করেছে। আমরা সরকারের এজাতীয় ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। নিয়োগপত্র, পরিচয়পত্র, সার্ভিস বুক প্রদান, চাকরীর নিরাপত্তা, সামাজিক নিরাপত্তা, নদীপথে চাঁদাবাজী, সন্ত্রাসী, ডাকাতী বন্ধ, কর্মস্থলে দুর্ঘটনায় ক্ষতিপূরণ ১০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরন, খাদ্য ভাতা, সী-এলাকাউন্স সহ ১১ দফা দাবীসহ সাথে সাথে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে জাহাঙ্গীর মাষ্টারকে বিনা শর্তে মুক্তি দেওয়ার আহ্বান জানায় এবং নৌযান শ্রমিকদের দাবী মালিক ও সরকার আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করতে নেতৃবৃন্দ জোরালো আহ্বান জানান। অন্যথায় ১১ দফা দাবী আদায়ে নৌযান শ্রমিকদের লাগাতার কর্মবিরতি পালন করে দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত চালিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান।

Leave a Reply

%d bloggers like this: