নিউজল্যান্ড সিরিজে ডাক পেলেন অভিজ্ঞ রুবেল

download-1নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৬ ডিসেম্বর, মঙ্গলবার :
বিপিএলের চলতি আসরে ঢাকা ডায়নামাইটসের হয়ে ৮টি ম্যাচ খেলেছেন পেসার মোহাম্মদ শহিদ। উদ্বোধনী ম্যাচেই ২১ রানে তুলে নিয়েছিলেন ৩টি উইকেট। এরপর চিটাগং ভাইকিংসের বিপক্ষে তুলে নেন আরো ৩টি উইকেট। এভাবেই নিজেকে মেলে ধরতে গিয়ে চোটাক্রান্ত হয়ে পড়েন বিপিএলের ২৭তম ম্যাচে। পরে আর কোনো ম্যাচ খেলার সুযোগ হয়নি এই পেসারের। নিউজল্যান্ড সিরিজে ডাকও পেয়েছিলেন তিনি। শেষ পর্যন্ত চোটের কারণেই ছিটকে পড়তে হল তাকে। তার স্থলে স্থলাভিষিক্ত হলেন পেসার রুবেল হোসেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) ক্রিকেট পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান। রুবেল বিপিএলের শুরুতে ভালো বল করেনি। ধীরে ধীরে সে উন্নতি করেছে। আমাদের কোচ ম্যাচগুলো দেখেছে। নির্বাচকদের সঙ্গে কথা বলেছে। ভালো পারফরম্যান্সের কারণেই তাকে দলে নেয়া। বিপিএল লিগ-পর্বে রংপুর রাইডার্সের হয়ে দেখিয়েছেন বোলিং কারিশমা। সেখান থেকেই নজরে পড়েন কোচ ও নির্বাচকদের। তিনি ১০ ম্যাচে তুলে নিয়েছেন ১৪টি উইকেট। ইংল্যান্ড সিরিজে ডাক পাননি পেসার রুবেল হোসেন। এর আগে আফগানিস্তান সিরিজে খেলেছিলেন তিনি। সেই সিরিজে নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি। এবার এসেছে নতুন একটি সুযোগ। তবে এ সুযোগ কাজে লাগাতে পারবেন তো ?

জুনিয়রদের মধ্যে দলে ডাক পেয়েছেন মোসাদ্দেক হোসেন, নুরুল হাসান সোহান, মেহেদী হাসান মিরাজ ও নাজমুল হোসেন শান্ত। তারা সবাই বিপিএলে করেছেন নজর কাড়া পারফরম্যান্স। আকরাম খান জানান, সিনিয়র ক্রিকেটাররা তো আছেই। যারা বাংলাদেশ দলে খেলবে। যারা ভবিষ্যতে খেলবে তাদেরকে অনুশীলনের একটা সুযোগ দেয়া হয়েছে দলে। তারা যদি এখান থেকে ভালো একটা শিক্ষা নিতে পারে আমার মনে হয় ভবিষ্যতে তাদের এটা অনেক কাজে দেবে। তিনি আরো জানান, আমরা বড় একটা দল করেছে। দলের সঙ্গে নির্বাচকও যাচ্ছে। উইকেট প্রসঙ্গে বলেন, বিপিএলে গতবারের উইকেট ভালো ছিল না। এবার কিন্তু উইকেট ভালো। মুস্তাফিজের প্রসঙ্গে তার ভাষ্য, আমরা তাকে নার্সিং করছি। তার যথেষ্ট উন্নতি হয়েছে। যখনই সুযোগ হবে তখনই তাকে খেলানোর চেষ্টা করব।

আগামী ৯ ও ১০ ডিসেম্বর দুই ভাগে ভাগ হয়ে অস্ট্রেলিয়া যাবে বাংলাদেশ দল। সিডনিতে ক্যাম্প শেষে ১৮ ডিসেম্বর দল যাবে নিউজিল্যান্ডে। নিউজিল্যান্ড সিরিজে ৩টি ওয়ানডে, ৩টি টি-টোয়েন্টি ও ২ টেস্টের পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। খেলাগুলো মাঠে গড়াবে ২৬ ডিসেম্বর থেকে ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত। ২৬ ডিসেম্বর ৩ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথমটি খেলবে বাংলাদেশ। ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে ক্রাইস্টচার্চে। বাকি ম্যাচ দুটি মাঠে গড়াবে ২৯ ও ৩১ ডিসেম্বর। ৩টি-টোয়েন্টির প্রথমটি ৩ জানুয়ারি নেপিয়ারে অনুষ্ঠিত হবে। ৬ ও ৮ জানুয়ারি মাউন্ট মাউনগানুইতে হবে আরও দুটি ম্যাচ। ২ টেস্টের প্রথমটি অনুষ্ঠিত হবে ওয়েলিংটনে। এটি শুরু হবে ১২ জানুয়ারি। শেষ টেস্টটি হবে ক্রাইস্টচার্চে ২০ জানুয়ারিতে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: