নায়িকা আমিশা প্যাটেলের বিরুদ্ধে আড়াই কোটি টাকার প্রতারণার মামলা!

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৩১ মার্চ ২০১৯ ইংরেজী, রবিবার: বলিউডের এক সময়ের জনপ্রিয় নায়িকা আমিশা প্যাটেলের বিরুদ্ধে আড়াই কোটি টাকার প্রতারণার মামলা করেছেন অজয়কুমার সিং নামে এক প্রযোজক। তার অভিযোগ, ‘দেশি ম্যাজিক’ নামে একটি ছবির জন্য আমিশা তার কাছ থেকে আড়াই কোটি টাকা নিয়েছেন কিন্তু ছবি হয়নি। আমিশাও ওই টাকা ফেরত দেননি। এই মর্মে প্রযোজক অজয় রাঁচী আদালতে মামলা করেছেন
অজয় সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘গত বছরের মার্চে রাঁচীতে একটা অনুষ্ঠানে আমিশার সঙ্গে আমার দেখা হয়। ছবি সম্পর্কে কথাবার্তা বলার পর সে সময় নায়িকাকে আড়াই কোটি টাকা দিয়েছিলাম। কথা ছিল, ২০১৮ সালের জুনে ‘দেশি ম্যাজিক’ ছবিটি মুক্তি পাবে। যেটা আমার জন্য লাভজনক হবে। কিন্তু সেটা হয়নি।’
প্রযোজক অভিযোগ করেন, ‘সুদসহ তিন মাসের মধ্যে টাকা ফেরত দেয়ার কথা ছিল। আমিশা তিন কোটি টাকার একটা চেকও দিয়েছিল। কিন্তু সেটা বাউন্স করে। এটা জানানোর পর আমিশা তার সঙ্গে বড় বড় লোকদের ছবি দেখিয়ে আমাকে ভয় দেখায়।’
তবে নিজের বিরুদ্ধে ওঠা এমন অভিযোগের ব্যাপারে এখনও পর্যন্ত প্রকাশ্যে মুখ খোলেননি অভিনেত্রী আমিশা প্যাটেল। তার ঘনিষ্ঠদের দাবি, আইনি পথে গোটা ব্যাপারটির মোকাবিলা করবেন নায়িকা।
২০০০ সালে রাকেশ রোশন পরিচালিত রোমান্টিক থ্রিলার ‘কাহো না পিয়ার হ্যায়’ ছবির মাধ্যমে বলিউডে অভিষেক হয়েছিল আমিশার। সেখানে তার নায়ক ছিলেন হার্টথ্রব ঋত্বিক রোশন। ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছিল নয়া এ জুটির অভিনয়। পাশাপাশি ব্যবসাসফল ও সুপারহিট সিনেমার তকমা পেয়েছিল ‘কাহো না পিয়ার হ্যায়’।
এরপর ২০০২ সালে আবার ঋত্বিকের বিপরীতে ‘আপ মুঝে আচ্ছে লাগনে লাগে’ ছবির মাধ্যমে নজর কাড়েন নায়িকা। একই বছর ববি দেওলের সঙ্গে ‘হামরাজ’ ছবিতেও তার অভিনয় সমালোচকদের প্রশংসা কুড়ায়। কিন্তু পরে আর আলো ছড়াতে পারেননি। গত এক যুগ নেই তিনি আলোচনায়। দীর্ঘদিন পর আলোচনায় আসলেন ঠিকই তবে প্রতারণার মামলায় জড়িয়ে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: