নারায়ণগঞ্জে ঘুষ গ্রহণের দায়ে পা ধরে ক্ষমা প্রার্থনা

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : ০৯ জুলাই ২০১৭,রবিবার: নারায়ণগঞ্জের টিকাদান কেন্দ্রে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগে এক স্বাস্থ্য সহকারীকে কান ধরে দাঁড়িয়ে থাকা এবং সেবাপ্রার্থীর পা ছুঁয়ে ক্ষমা চাওয়ানো হয়েছে। রোববার দুপুরে উপজেলা কার্যালয়ে স্থায়ী টিকাদান কেন্দ্রে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ চৌধুরী মোহাম্মদ ইকবাল বাহার সেবাপ্রার্থীদের কাছে স্বাস্থ্য সহকারী বাবুল হোসেনকে ক্ষমা চাওয়ান।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুপুর ১টায় উপজেলা স্থায়ী টিকাদান কেন্দ্রে শিশুদের টিকা দিচ্ছিলেন স্বাস্থ্য সহকারী বাবুল হোসেন। এসময় দীর্ঘ লাইন ছিল সেবাপ্রার্থী মা ও শিশুদের। একটি শিশুকে টিকা দিতে বাবুল হোসেন সময় নিয়েছেন প্রায় ২০ থেকে ২৫ মিনিট। কারণ শিশুদের নিয়ে টিকা কেন্দ্রে প্রবেশ করলে মায়েদের কাছ থেকে চা-পানের কথা বলে ১০০ টাকা করে দাবি করে থাকেন। রোববার একপর্যায়ে দাবিকৃত টাকা নিয়ে হৈচৈ করলে অনেক মায়ের সঙ্গে বাগবিতন্ডা হয় বাবুল হোসেনের। বিষয়টি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ চৌধুরী মোহাম্মদ ইকবাল বাহারকে জানানো হয়। এতে তিনি টিকাদান কেন্দ্রে উৎ পেতে থাকেন। একপর্যায়ে এক নারী বাবুল হোসেনকে ১০০ টাকা দিলে ডাঃ চৌধুরী মোহাম্মদ ইকবাল বাহার তাকে টাকাসহ আটক করে কান ধরে দাঁড় করিয়ে রাখেন। এরপর সেবাপ্রার্থী সেই নারীর পা ছুঁয়ে ক্ষমা চাইতে বলেন ডাঃ চৌধুরী মোহাম্মদ ইকবাল বাহার। বাবুল হোসেন সেই সেবাপ্রার্থী নারীর পা ছুঁয়ে ক্ষমা চেয়েছেন।
ডাঃ চৌধুরী মোহাম্মদ ইকবাল বাহার এর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বাবুল হোসেনকে এর জন্য তলব করা হয়েছে।
এ বিষয়ে জানতে বাবুল হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোনো মন্তব্য করেননি। তবে তার সহকর্মীরা বাবুল হোসেনের এই সাজাকে অতিরিক্ত ও সম্মানহানি বলে মন্তব্য করেছেন। তাদের দাবি বাবুল হোসেনকে এ সাজা না দিয়ে অফিসে ডেকে নিয়ে ধমক দিতে পারতেন কিংবান্যত্র বদলি করলে তাও ভালো হতো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*