নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে এক বিয়ে বাড়ি থেকে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবী

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ০৪ জুলাই ২০১৭, মঙ্গলবার: নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে একটি চাঁদাবাজ চক্র ডিআইজি ও ওসি পরিচয় দিয়ে এক বিয়ে বাড়ি থেকে ৫ লাখ টাকা চাঁদা চেয়ে ৭৭ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগে ২জনকে আটক করা হয়েছে। ৩ জুলাই সোমবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার এ কান্দাপাড়া এলাকা থেকে চাঁদাবাজ চক্রের দুই সদস্যকে আটক করে পুলিশ। আটক প্রতারকরা হলো উপজেলার মাসাবো এলাকার সাইফুদ্দিন মোল্লা ওরফে রিপন (৩৩) ও সোহেল মিয়া (৩২)।
ভুক্তভোগী নিরীহ রিপন মিয়া জানান, গত ২৯ জুন শুক্রবার দুপুরে তার মেয়ে সামিরা ইসলাম রুপার (১৮) ইসলামী শরিয়াহ মোতাবেক বিয়ের আয়োজন করেন। এসময় মাসাবো এলাকার সাইফুদ্দিন মোল্লা ওরফে রিপন, সোহেল মিয়া, কান্দাপাড়া এলাকার জিনু, হানিফ, কবির ভান্ডারি, তেতলাবো এলাকার সালামসহ কয়েকজন চাঁদাবাজ নিজেদের ডিআইজি ও ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে সামিরা ইসলাম রুপার বয়স কম বলে প্রথমে বিয়েতে বাধা সৃষ্টি করার চেষ্টা চালায়।
চাঁদাবাজদের কথা শুনে রিপন মিয়া তার মেয়ের জন্ম নিবন্ধন প্রতারকদের দেখালে তারা জন্ম সনদ মাটিতে ছুড়ে ফেলে দেয়। চাঁদাবাজরা রিপন মিয়ার কাছে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। তাদের দাবিকৃত চাঁদার টাকা না দিলে তারা বিয়ে হতে দিবে না। নিরীহ রিপন মিয়া কোন উপায় না পেয়ে চাঁদাবাজদের ৭৭ হাজার টাকা দিতে বাধ্য হয়। এসময় চাঁদাবাজ চক্রটি দুইটি মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে যায়।
এছাড়া এ ঘটনা কাউকে জানালে হত্যা করবে বলেও হুমকি ধামকি প্রদান করেন। সোমবার সন্ধ্যায় রিপন মিয়া এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। পরে ওই অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ দুই চাঁদাবাজকে আটক করেন। রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইসমাইল হোসেন জানান, এটি একটি ন্যাক্কারজনক ঘটনা। চাঁদাবাজদের দুই জনকে আটক করা হয়েছে। বাকিদের আটকের চেষ্টা চলছে।

 

Leave a Reply

%d bloggers like this: