নাজমুল হাসান পাপনের বক্তব্য নিয়ে আলোচনা

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ০৪ জানুয়ারী ২০১৭, বুধবার: বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের একটি বক্তব্য নিয়ে চারদিকে আলোচনা চলছে। নিউজিল্যান্ডের উদ্দেশে দেশ ছাড়ার আগে তিনি বলেন, ‘দল নির্বাচন নিয়ে তিনি বা কোচ হস্তক্ষেপ করেন না। যা করার মাশরাফি-সাকিবই করেন।’ সেই সঙ্গে আরো বলেন, ‘তানবীরকে তো মাশরাফিই দলে রাখতে চেয়েছিল।’
‘তানবীরকে মাশরাফি দলে রেখেছেন’ পাপনের এই কথা নিয়ে অনেকের দ্বিমত আছে। মাশরাফি নিজে অবশ্য কিছু বলছেন না। নিউজিল্যান্ডে সংবাদ সম্মেলনে এ ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে বলেন, ‘অধিনায়ক হিসেবে আমি বলতে পারি না যে ওমুককে রাখতে চাইনি। সেটা শোভন হবে না।’
মাশরাফির এই কথা থেকেই বোঝা যায় আসল ব্যাপারটা। পাপন শুধু মাশরাফি নয়, তানবীরকে নিয়ে বলতে যেয়ে প্রধান নির্বাচককে নিয়েও কথা বলেছেন। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এ উদ্ধৃতি নিয়ে নাকি আপত্তি আছে মিনহাজুল আবেদিনেরও!
ইস্যুটি সামনে এসেছে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডের পর থেকে। সৌম্য সরকারের পরিবর্তে সে ম্যাচে অভিষিক্ত হন তানবীর। সেদিন প্রথম ম্যাচ খেলেছেন আরো তিনজন। চোটের কারণে মুশফিকুর রহিম ছিটকে যাওয়ায় তিনজনের অভিষেকে অভিজ্ঞতার ঘাটতি পড়ে আরো বেশি করে। দলের ভেতর-বাইরের অনেকের বিশ্বাস, স্বাগতিকদের ২৫১ রানে আটকে দেওয়া ম্যাচে সৌম্যকে খেলানো যৌক্তিক হতো, জিততেও পারত বাংলাদেশ। কিন্তু বাংলাদেশ হেরেছে, হারের পর থেকেই একাদশ নির্বাচন নিয়ে কাঠগড়ায় কোচ চন্দিকা হাতুরাসিংহে।
এ ইস্যুতে সিনিয়র ক্রিকেটারদের সঙ্গে তাঁর দূরত্ব আরেকটু বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনাই প্রবল। সেটাও মেরামতযোগ্য হয়তো। কিন্তু উদ্ভূত পরিস্থিতির নির্মম শিকার বেচারা তানবীর! কাউকে ধরাধরি করে টিমে ঢোকেননি তিনি। নেটে দেখে ২০১৯ বিশ্বকাপ পরিকল্পনায় নিয়েছেন, অস্ট্রেলিয়া ঘুরিয়ে নিউজিল্যান্ডে তাকে এনেছেন হাতুরাসিংহে, খেলিয়েছেনও ওয়ানডেতে।
তানবীর কোচের না অধিনায়কের পছন্দের ক্রিকেটার—এ প্রশ্ন তোলা কিংবা উত্তর দেওয়ার মানে একটাই, এ দুজনের কোনো একজন নিশ্চিতভাবেই তাঁকে দলে চাননি। একজন নবাগত ক্রিকেটারের জন্য এর চেয়ে মর্মান্তিক আর কী হতে পারে, যে পরিস্থিতি মোটেও তার নিজের সৃষ্ট নয়!

Leave a Reply

%d bloggers like this: