‘ধারাবাহিক রক্ত পরীক্ষা বাধ্যতামূলক করা উচিত’

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : ‘সব ধরনের রোগ নির্ণয়ের জন্য ধারাবাহিক রক্ত পরীক্ষা করা আইনগতভাবে বাধ্যতামূলক করা উচিত’ বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। তিনি বলেন, ‘যে কোনো রোগ নির্ণয়ের জন্য প্রাথমিকভাবে রক্ত পরীক্ষা করা উচিত। HEALTH1আগামী সংসদে বিষয়টি সরকারি কিংবা বেসরকারিভাবে উত্থাপিত হতে পারে। সেটা হলে আবার বিতর্ক হবে, কিন্তু আগে বিষয়টি উত্থাপিত হোক। তবে আমি মনে করি ধারাবাহিকভাবে রক্ত পরীক্ষার বিষয়টি আইনগতভাবে বাধ্যতামূলক করা উচিত।’ জাতীয় প্রেস ক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে শুক্রবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ থ্যালাসেমিয়া সমিতির লটারির ড্র অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, ‘রক্ত পরীক্ষার পর এর বিস্তারিত বিবরণ ইউনিয়ন পরিষদে জমা দেওয়ার নিয়ম করা যেতে পারে। সেক্ষেত্রে এমন একটি ডাটা ব্যাংক তৈরি হবে যাতে বিয়ে করাসহ বিভিন্ন বিষয়ে সহজেই কোনো ব্যক্তির রক্ত সম্পর্কে তথ্য পাওয়া যায়। আবার কোনো রোগের তথ্যের ক্ষেত্রেও সরকার সহজেই এ ক্ষেত্রে তথ্য পেতে পারে।’ থ্যালাসেমিয়া রোগীদের জন্য বাজেটে বরাদ্দের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘যারা থ্যালাসেমিয়ায় ভুগছেন তাদের দায়ভার রাষ্ট্রকে নিতে হবে। এক্ষেত্রে রাষ্ট্র কোনো অজুহাত দিতে পারে না। আমি মনে করি সরকার থ্যালাসেমিয়া রোগীদের জন্য আরও যতœবান হবে এবং বাজেটে এক্ষেত্রে অর্থবরাদ্দ রাখবে। এ জন্য আমরা সুপারিশ করতে পারি।’ তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সরকার দেশের সবার জন্য উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা চালুর চেষ্টা করছে। কিন্তু এখনো আমরা সে লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারিনি। আসলে এর পিছনে রয়েছে আমাদের দীর্ঘদিনের অস্থিতিশীল রাজনীতি। ফলে সামাজিক বিষয়গুলো আমরা প্রতিষ্ঠিত জায়গায় নিয়ে যেতে পারিনি। তিনি আরও বলেন, ‘থ্যালাসেমিয়া রোগসহ মানুষের অন্যান্য ব্যাধি যেমন নির্মূল করতে হবে, তেমনি সমাজে কিছু কীটপতঙ্গ রয়েছে। সামাজিক এ সব কীটপতঙ্গ আমাদেরও দূর করতে হবে।’ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা বিভাগের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) আনিছুর রহমান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ থ্যালাসেমিয়া সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোশাররফ হোসেন। অনুষ্ঠানে ১০ টাকা মূল্যমানের লটারির ড্র অনুষ্ঠিত হয়। ড্রতে বিজয়ী ১০০১ জন ৪০ লাখ টাকা মূল্যমানের পুরস্কার পাবেন। সূত্র : দ্য রিপোর্ট

Leave a Reply

%d bloggers like this: