দোহাজারী পৌরসভার প্রশাসক নিয়োগ

মোঃ কামরুল ইসলাম মোস্তফা, ০২ জুলাই ২০১৭, রবিবার: দক্ষিণ চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলার নবগঠিত পৌরসভা দোহাজারী’র পৌর কার্যক্রমের প্রাথমিক ধাপ হিসেবে চন্দনাইশ উপজেলা নির্বাহী অফিসার লুৎফুর রহমানকে পৌর প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন ২০০৯ এর ৪২ ধারার (১) উপ-ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে নবগঠিত দোহাজারী পৌরসভার সার্বিক কর্মকান্ড পরিচালনা করার জন্য গত ১৪ জুন (বুধবার) স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়ের সহকারী সচিব মোহাম্মদ আনিসুজ্জামান সাক্ষরিত এ সম্পর্কিত দাপ্তরিক পত্রে [স্মারক নং-৪৬.০০.০০০০.০৬৪.৩১.১১৭.১৫.১৭৭৬/১(৪)] এ নির্দেশ দেয়া হয়েছে। স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন, ২০০৯ ও সংশ্লিষ্ট বিধি-বিধান অনুযায়ী প্রশাসক দোহাজারী পৌরসভার সার্বিক কর্মকান্ড পরিচালনা করবেন বলে পরিপত্রে উল্লেখ করা হয়েছে। এ আদেশ অবিলম্বে কার্যকর হবে বলেও পত্রে উল্লেখ করা হয়েছে।

এব্যাপারে চন্দনাইশ উপজেলা নির্বাহী অফিসার লুৎফুর রহমান বলেন, “পরিপত্র জারির পর থেকে পৌর প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব পালণ করছেন তিনি। দোহাজারী পৌর এলাকার ওয়ার্ড পুনর্বিন্যাসকে অগ্রাধিকার দিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার মাধ্যমে দ্রুততম সময়ে ওয়ার্ড পুনর্বিন্যাসের কাজ সম্পন্ন করবেন বলেও জানান তিনি।”
প্রসঙ্গতঃ দক্ষিন চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলার দোহাজারী ইউনিয়ন ও সাতবাড়িয়া ইউনিয়নের হাছনদন্ডী মৌজা নিয়ে দোহাজারী নামে একটি পৌরসভা গঠনের সিদ্ধান্ত চলতি বছর ৯ জানুয়ারী (সোমবার) জাতীয় প্রশাসনিক সংস্কার কমিটি নিকারের সভায় অনুমোদন পেয়েছে। দোহাজারী ইউনিয়নকে পৌরসভায় উন্নীত করে সরকারী গেজেট বা পরিপত্র জারি হয় গত ১১ মে (বৃহস্পতিবার)। স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয় এর স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে পরিপত্র জারির মাধ্যমে পৌরসভা বাস্তবায়নের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করেছে সরকার।
প্রজ্ঞাপন সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন ২০০৯ (২০০৯ সনের ৫৮ নং আইন) এর ধারা ৪ এর উপ-ধারা (২) এ প্রদত্ত ক্ষমতাবলে সরকার দোহাজারী ইউনিয়নকে পৌরসভায় উন্নীত করেছে।
দোহাজারী পৌরসভার অন্তর্ভুক্ত এলাকা সমূহ হলোঃ- দোহাজারী ইউনিয়নের চাগাচর, দোহাজারী, রায়জোয়ারা, হাতিয়াখোলা, জামিজুরী ও দিয়াকুল মৌজা এবং সাতবাড়িয়া ইউনিয়নের হাছনদন্ডী মৌজা। পৌর প্রশাসক নিযুক্ত হওয়ায় পর পৌর এলাকার ওয়ার্ড পুনর্বিন্যাস ও ভোটার তালিকা প্রণয়ন শেষে নির্বাচন কমিশন থেকে কখন দোহাজারী পৌরসভা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হবে তা কারও জানা নেই।
তবে পৌরসভা ঘোষণার পর মেয়র ও কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আগ্রহী অধিক প্রার্থীর আনাগোনা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার ইচ্ছা মনের মধ্যে পোষণ করে প্রায় প্রতিদিন কোনো না কোনো নেতা নিজে নিজে অথবা দলবল নিয়ে শো-ডাউনের চেষ্টারপাশাপাশি নতুন পৌর এলাকার ভোটার ও জনগণের দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। বিয়ে, মেজবান সহ সামাজিক নানা আচার-অনুষ্ঠানে তাঁদের উপস্থিতি লক্ষণীয়। সম্প্রতি পবিত্র ঈদ-উল ফিতর উপলক্ষে পৌর এলাকার বিভিন্ন ওয়ার্ডেজনসাধারনের সাথে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময়ের মাধ্যমে জনসংযোগ করেন সরকার দলীয় সাম্ভাব্য প্রার্থীরা।

Leave a Reply

%d bloggers like this: