দেশে কি মার্শাল ল’ নাকি জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে?

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১০ ফেব্র“য়ারী: সচিবালয়ের গেটে এমপির গাড়ি ঢুকতে না দেয়া নিয়ে পুলিশি কর্মকাণ্ডে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন জাতীয় পার্টির বগুড়া-৬ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) নুরুল ইসলাম ওমর। তিনি বলেন, দেশে কি মার্শাল ল’ নাকি জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে যে সচিবালয়ের গেটে এত বাড়াবাড়ি করছে পুলিশ? বর্তমানে দেশে কি পুলিশি রাজত্ব কায়েম হয়েছে? তাহলে কি ‘মাছের রাজা ইলিশ, দেশের রাজা পুলিশ’- এটাই সত্য? সংসদে আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পয়েন্ট অব অর্ডারে আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এই ক্ষোভ প্রকাশ করেন।desh
নুরুল ইসলাম ওমর স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, আজ একটি কাজে সচিবালয় যাই। আমার একটি কাগজ বাইরে থাকায় আমার ব্যক্তিগত সহকারীকে (পিএ) গাড়ি দিয়ে পাঠিয়ে দেই কাগজটি আনতে। বিপত্তি যখন পিএ গাড়ি নিয়ে পুনরায় সচিবালয় ঢুকতে যায় তখন। কর্তব্যরত পুলিশ তাকে ঢুকতে দেয়নি। তারা (পুলিশ সদস্যরা) বলেছে এমপি সাহেব নাই তাই আপনাকে যেতে দিবো না।
এরপর পিএ আমাকে ফোনে চেষ্টা করে, আমি তাকে বলি যে দায়িত্বে আছে তাকে দাও। পুলিশ সদস্য বলেছে আমরা কারো সাথে কথা বলবো না। কোন কথাই তারা শোনেনি। পরে আমি পিএ-কে বললাম, ঠিক আছে তোমাকে যেহেতু আসতে দিচ্ছে না, তাহলে বাইরে থাক, আমি আসছি। এরপর তাকে বাইরেও যেতে দেবে না।
পরে আমি যখন গেলাম তখন পুলিশ সদস্যদের বললাম, ঘটনাটা কি? দেশে কি মার্শাল ল’ নাকি জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে? আপনারা আসতেও দেবেন না, যেতেও দেবেন না, ঘটনাটা কি?
এসময় আমি পুলিশ সদস্যদের বললাম, আপনাদের একজন অফিসারকে ডাকেন। পরে একজন এসআইকে পেলাম। তাকে বললাম, আপনি যেতেও দিচ্ছেন না, আসতেও দিচ্ছেন, তাহলে কি পিএকে গ্রেফতার করবেন, আটকে রাখবেন?
এমপি বলেন, এটা কোন ধরনের আচরণ? একজন এমপির সাথে পুলিশ কি আচরণ করবে সেটা জানে না। আজ আমার একটি কথাই বেশি মনে পড়ছে, কয়েকদিন আগে পত্রিকায় দেখেছি- মাছের রাজা ইলিশ, দেশের রাজা পুলিশ। তাহলে কি এটাই সত্যি? এ সময় তিনি সচিবালয়ের ওই ঘটনার তদন্ত দাবি করেন।
তিনি অভিযোগ করেন, যারা এই ধরনের কাজ করছে তারা নিশ্চয়ই জামায়াত-শিবির বা বিএনপির লোক। তারা সংসদ সদস্যদের অবমাননা করতেই এই কাজ করছে। একটি সুষ্ঠু তদন্ত করে বিষয়টি বের করতে হবে। আর তা না হলে ধরে নিবো পুলিশই দেশের রাজা। এ ঘটনা একজন এমপির সাথে করা মানে পুরো সংসদকে অবমাননা করা। তাহলে সাধারণ মানুষের সাথে পুলিশ কি ধরনের আচরণ করে তা বোঝাই যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*