দুর্নীতি না হলে ২০১১ সালে সেতু প্রকল্পে বিশ্বব্যাংক কেন অর্থায়ন বন্ধ করলো: রিজভী

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ০৩ জানুয়ারী ২০১৭, মঙ্গলবার : পদ্মা সেতু নিয়ে খালেদা জিয়ার দেয়া এক বক্তব্যের প্রক্ষিতে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের দেয়া বক্তব্যকে গণতন্ত্রের জন্য বিরাট হুমকি বলে দাবি করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। মঙ্গলবার সকালে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এমন দাবি করেন।
গত রবিবার রাজধানীতে ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনায় খালেদা জিয়া বলেছিলেন, পদ্মাসেতু প্রকল্প আদৌ বাস্তবায়ন হবে কি না এ নিয়ে তার প্রশ্ন আছে। সরকারের লুটপাটের কারণেই এই প্রকল্পের খরচ বেড়েছে।
খালেদাকে তার অভিযোগ প্রমাণের চ্যালেঞ্জ করে ওবায়দুল কাদের বলেছিলেন, তথ্য প্রমাণ দিয়ে পদ্মা সেতুতে দুর্নীতি প্রমাণ করুন। অথবা বক্তব্য প্রত্যাহার করুন। তা না হলে আপনাকে মামলার সম্মুখীন হতে হবে।
ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের জবাবে রিজভী বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদকের বক্তব্য দেশে তাদের হুমকি সংস্কৃতির বহিঃপ্রকাশ। অগণতান্ত্রিক ও জনগণের ম্যান্ডেটবিহীন স্বৈরাচারি সরকারই মানুষের কথা বলা বন্ধ করার জন্য হুমকি দেয়। আতঙ্ক থেকেই তাদের মধ্যে হুমকির প্রবণতা দেখা দেয়। কোনো সৎ ও গণতান্ত্রিক সরকার কোনো সমালোচনাতেই হুমকির আশ্রয় নেয় না।’

ওবায়দুল কাদেরের উদ্দেশে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, দুর্নীতি না হলে ২০১১ সালে সেতু প্রকল্পে বিশ্বব্যাংক কেন অর্থায়ন বন্ধ করলো? পদ্মা সেতুর কাজ পেতে তৎকালীন যোগাযোগমন্ত্রীকে দেশপ্রেমিক সার্টিফিকেট দিয়ে মন্ত্রিত্ব কেড়ে নিয়েছিলেন কেন? সচিবসহ কয়কজন কর্মকর্তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল কেন?।’ এ সময় ৭ জানুয়ারি রাজধানীতে সমাবেশের অনুমতি পাওয়া যায়নি বলে জানান রিজভী।

Leave a Reply

%d bloggers like this: