দলের বাইরে পাকিস্তানের অলরাউন্ডার হাফিজ

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৫ অক্টোবর, মঙ্গলবার: বোলিং অ্যাকশন নিয়ে আপত্তি উঠার পর থেকেই দলের বাইরে পাকিস্তানের অন্যতম অলরাউন্ডার মোহাম্মদ হাফিজ। ২০১৪ সাল থেকেই তার বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সংশয় দেখা দেয়। ঐ বছরের নভেম্বরে দ্বিতীয়বারের মত তার বোলিং নিয়ে আপত্তি ওঠায় ২০১৫ এর জুলাইতে এক বছরের জন্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বোলিংয়ের ক্ষেত্রে তার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপা করা হয়।1
তবে বোলিং অ্যাকশন পাল্টাতে এখন শতভাগ প্রস্তুত বলে দাবী করেছেন পাকিস্তানের অন্যতম এ অলরাউন্ডার। ইতিমধ্যেই ইংল্যান্ডের কার্ল ক্রোকে বোলিং কোচ হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। ইংল্যান্ডে বোলিং পরীক্ষা দিতে যাওয়ার আগে নতুন কোচের অধিনে নিজেকে পাল্টানোর কাজ ভালোভাবেই এগোচ্ছে বলে জানিয়েছেন হাফিজ।
ইংল্যান্ড সফরের সময় হাঁটুর সমস্যা বেশ ভুগিয়েছে হাফিজকে। যে কারণে সফর শেষ না করেই দেশে ফিরে আসতে হয়েছিল তাকে। তাছাড়া ওই সফরে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে ব্যাট হাতে নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি পাকিস্তান ওয়ানডে দলের সাবেক অধিনায়ক। ওয়ানডে সিরিজেও মাত্র একটি ম্যাচ খেলেই ইনজুরির কবলে পড়ে তিনি পাকিস্তানে ফিরে আসেন।
‘হাটুর সমস্যার কারণে আইসিসির বোলিং অ্যাকশন পরীক্ষা দেয়ার জন্য আমি পুরোপুরি ফিট ছিলাম না। তবে এখন অনেকটাই সুস্থ আছি। বোর্ডকে বলেছি আইসিসির কাছ থেকে পরীক্ষা দেয়ার তারিখ নিয়ে আসার জন্য, বলেন হাফিজ।
আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের জন্য নিজেকে ফিট করে তুলতে বর্তমানে নিয়মিত ঘরোয়া ক্রিকেটে অংশ নিচ্ছেন হাফিজ। প্রস্তুত হচ্ছেন নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের জন্য। হাফিজের ভাষায়, বাকিটা নির্ভর করছে নির্বাচকদের ওপর। পাকিস্তানের হয়ে এ পর্যন্ত ৫০ টেস্ট, ১৭৭ ওয়ানডে ও ৭৭টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন হাফিজ।

Leave a Reply

%d bloggers like this: