তৃতীয়বারের মত দেশ পরিচালনার দায়িত্বে ক্ষমতাসীন দল

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ০৭ জানুয়ারী ২০১৯ ইংরেজী, সোমবার: আগামী পাঁচ বছর দেশ পরিচালনার জন্য যে সরকার শপথ নিতে যাচ্ছে তার শপথের জন্য প্রস্তুতি শেষ হয়েছে বঙ্গভবনে। এই শপথের মধ্যে দিয়ে টানা তৃতীয়বারের মত দেশ পরিচালনার দায়িত্ব পাচ্ছে বর্তমান ক্ষমতাসীন দল। আর শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন চতুর্থ মেয়াদে। এটি বাংলাদেশে ইতিহাস। আগেই জানানো হয়েছে যে, সোমবার বিকাল সাড়ে তিনটায় বঙ্গভবনের দরবার হলে নতুন মন্ত্রিসভার শপথ পড়াবেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। প্রথমে প্রধানমন্ত্রী এবং পর্যায়ক্রমে মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী এবং উপমন্ত্রীরা শপথ নেবেন। যারা শপথ নেবেন তাদের নাম আগের দিনই জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। প্রথমবারের মতো শপথের আগেই কার কী দপ্তর থাকবে, সেটাও জানানো হয়েছে। এবার শেখ হাসিনার মন্ত্রিসভায় থাকছে পূর্ণ ২৪ জন মন্ত্রী, ১৯ জন প্রতিমন্ত্রী এবং তিনজন উপমন্ত্রী। আর ৪৬ জন সঙ্গীর মধ্যে ২৭ জনই কখনো মন্ত্রিসভায় ছিলেন না। বিদায়ী সরকারের ৩৬ জন বাদ পড়েছেন। আর এর আগের সরকারের চার জন ফিরে এসেছেন। শেখ হাসিনা প্রথমবারের মতো কেবল আওয়ামী লীগের সদস্যদেরকে নিয়ে মন্ত্রিসভা করতে যাচ্ছেন। শরিক বা অন্য কোনো দল থেকে কাউকেই নেননি তিনি। শপথ অনুষ্ঠানের জন্য দরবার হলে এক হাজারের মত অতিথির বসার ব্যবস্থা হয়েছে। পদস্থ কর্মকর্তা, ব্যবসায়ী, কূটনীতিক, নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিসহ অতিথিদের দাওয়াতপত্র পাঠানোর কাজ শুরু হয়েছে আগেই। শপথ অনুষ্ঠান শেষে বঙ্গভবনের মাঠে থাকছে আপ্যায়নের ব্যবস্থা। সেখানেও সব ব্যবস্থাই চূড়ান্ত প্রায়। গত ৩০ ডিসেম্বরের ভোটে নিরঙ্কুশ জয় পাওয়ার আট দিনের মাথায় হচ্ছে এই সরকার। এর আগে ২০১৪ সালের ১২ জানুয়ারি এবং ২০০৯ সালের ৬ জানুয়ারি এবং ১৯৯৬ সালের ২৩ জুন শপথ নেয় শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মন্ত্রিসভা। মুক্তিযুদ্ধের বছরে গঠিত বাংলাদেশের প্রথম সরকারও গঠন হয়েছিল আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে। ১৯৭১ সালের ১৭ এপ্রিল শপথ নেওয়া ওই সরকারের অবস্থান ছিল কলকাতায়। ১৬ ডিসেম্বর বিজয়ের পর বঙ্গবন্ধু দেশে ফিরে ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি শপথ নেন সরকার প্রধান হিসেবে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: