তুরস্কের সামরিক বাহিনীর সদস্যদের আত্মসমর্পণ

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১৬ জুলাই: আত্মসমর্পণ করতে শুরু করেছে তুরস্কের সরকার উৎখাতের চেষ্টাকারী সামরিক বাহিনীর সদস্যরা। আজ শনিবার সকাল থেকে আত্মসমর্পণ করতে শুরু করেন তারা।1
আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা যায়, দেশটির একটি সেতুতে অবস্থান নেওয়া অভ্যুত্থানকারী সেনারা তাদের সাঁজোয়া যান থেকে একে একে হাত তুলে আত্মসমর্পণের ভঙ্গিতে বেরিয়ে আসছেন। এর আগে অভ্যুত্থান প্রচেষ্টার শুরুতে শুক্রবার রাতে ওই সেতু দখল করেছিল তারা।
তুরস্কে অভ্যুত্থানচেষ্টায় অংশ নেয়া সৈন্যদের বাকি সদস্যরা অস্ত্র সমর্পণ করছেন। বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, ইস্তাম্বুলের তাকসিম স্কয়ারে ১০ বিদ্রোহী সৈন্য সশস্ত্র পুলিশের কাছে তাদের অস্ত্র জমা দিয়েছে। তবে এখনো বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনা ঘটছে বলে জানা গেছে। পার্লামেন্ট ভবনের বাইরে দুটি বিস্ফোরণের খবর দিয়েছে রয়টার্স।2
তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইয়িলদিরিম জানিয়েছেন, সামরিক অভ্যুত্থান প্রতিরোধ করা হয়েছে। সারা দেশ সরকারের নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে। তিনি জানান, তুরস্ক সেনাবাহিনীর একটি গ্রুপ দৃশ্যত ক্যু করার চেষ্টা করেছিল। তিনি বিস্তারিত বিবরণ দেননি। তবে জানিয়েছেন, গণতন্ত্রকে বাধাগ্রস্ত করার কোনো চেষ্টা বরদাস্ত করা হবে না।
শুক্রবার রাতে সামরিক বাহিনীর একটি অংশ দাবি করে, তারা দেশের সব নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করেছে। তারা সারা দেশে সামরিক আইন কারফিউ জারি করার কথাও জানায়। পার্লামেন্ট ভবনের বাইরে গোলাবর্ষণও করেছে। তারা সেনাপ্রধান হুলসি আকারকে পণবন্দি করে। রাজধানী আঙ্কারার আকাশে সামরিক বিমান উড়ার শব্দও শোনা যায়।
পুলিশ জানিয়েছে, যেসব সৈন্য সামরিক অভ্যুত্থানচেষ্টার সঙ্গে জড়িত ছিল তাদের বেশির ভাগকে আটক করা হয়েছে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: