তিনটি ডাবল সেঞ্চুরি রোহিত শর্মার

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৩ অক্টোবর ২০১৯ ইংরেজী, বৃহস্পতিবার: ওয়ানডে ক্রিকেটে ইতিহাসের সর্বোচ্চ তিনটি ডাবল সেঞ্চুরি রয়েছে ভারতের টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মার। কিন্তু টেস্ট ক্রিকেটে নেই একটিও। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে প্রথমবারের মতো সাদা পোশাকের ক্রিকেটে ওপেন করতে নেমে সম্ভাবনা জাগিয়েছিলেন দ্বিশতক হাঁকানোর।
কিন্তু খুব কাছে গিয়েও পারেননি সেটি করতে, আউট হয়েছেন ১৭৬ রানে। পড়ে তিন নম্বরে নামা চেতেশ্বর পুজারা (৬) এবং চারে নামা অধিনায়ক বিরাট কোহলিও (২০) ব্যর্থ হয়েছেন। তবে নিজের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরিকে ঠিকই ডাবল সেঞ্চুরিতে রূপ দিয়েছেন রোহিতের উদ্বোধনী সঙ্গী মায়াঙ্ক আগারওয়াল।

বৃষ্টির কারণে ম্যাচের প্রথম দিন শেষ সেশনের খেলা হয়নি। ৫৯.১ ওভার ব্যাট করে বিনা উইকেটে ২০২ রান সংগ্রহ করেছিল ভারত। সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে রোহিত অপরাজিত ছিলেন ১১৫ রানে, মায়াঙ্কের সংগ্রহ তখন ৮৪ রান। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত দ্বিতীয় দিনের চা বিরতি পর্যন্ত ভারতের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ৪৫০ রান।

দ্বিতীয় দিন সকালে ঠিক প্রথম দিনের মতোই খেলতে থাকেন দুই ওপেনার। উদ্বোধনী জুটিটাকে নিয়ে যান ৩১৭ রান পর্যন্ত। নিজের সেঞ্চুরিকে দেড়শতে পরিণত করে দ্বিশতকের খুব কাছে চলে গিয়েছিলেন রোহিত। কিন্তু কুইন্টন ডি ককের চতুরতায় স্টাম্পিংয়ে ধরা পড়ে যান। আউট হওয়ার আগে ২৪৪ বলে ২৩ চার ও ৬ ছক্কার মারে ১৭৬ রান করেন রোহিত।

পরে তিন নম্বরে নেমে পুজারা ৬ ও চারে নেমে অধিনায়ক কোহলি থামেন মাত্র ২০ রান করে। অপরপ্রান্তে অবিচল ছিলেন মায়াঙ্ক। পুজারা-কোহলির মতো আজিঙ্কা রাহানেও (১৫) তেমন একটা সঙ্গ দেননি। তবে এতে কোনো সমস্যা হয়নি মাত্র পঞ্চম টেস্ট খেলতে নামা মায়াঙ্কের।

ভারতের ইতিহাসের চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে নিজের প্রথম সেঞ্চুরিকে ডাবল সেঞ্চুরিতে রূপ দেন মায়াঙ্ক। পঞ্চম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হওয়ার আগে রোহিতের সমান ২৩ চার ও ৬ ছক্কার মারে ৩৭১ বল খেলে ২১৫ রান করেন এ ডানহাতি ওপেনার।

সেট ব্যাটসম্যানরা সবাই আউট হয়ে যাওয়ার পর এখন লড়াই চালিয়ে নিচ্ছেন হানুমা বিহারী এবং রবিন্দ্র জাদেজা। বিহারী ৮ ও জাদেজা ৬ রানে অপরাজিত রয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*