টেকনাফ-উখিয়া সীমান্ত দিয়ে ঢুকছে ইয়াবা

অজিত কুমার দাশ হিমু, কক্সবাজার : রাজনৈতিক অস্থিরতা নিয়ন্ত্রণে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে পুলিশ-বিজিবি। এ সুযোগটি লুফে নিয়েছে ইয়াবা ব্যবসায়ীরা। কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফ উপজেলার সীমান্ত দিয়ে দেদারছে ঢুকছে নিষিদ্ধ মরণ নেশা ‘ইয়াবা’। পুরনো গড়ফাদারদের হাত ধরেYaba ইয়াবা ব্যবসায় যোগ হচ্ছে নতুন নতুন লোক। দমানো যাচ্ছে না সম্প্রতি জনপ্রিয় (!) হয়ে ওঠা এ ব্যবসা। প্রতিদিন সড়ক পথে বাজারে যাচ্ছে কোটি কোটি টাকার ইয়াবা। অবিষ্কার হচ্ছে নিত্য নতুন কৌশল। সাগর পথে ব্যবহার করা হচ্ছে মাছ ধরার ট্রলারগুলোকে। দ্রুত গতির জন্য সাধারণ ইঞ্জিনের পরিবর্তে ট্রলারে যুক্ত হয়েছে হিনো বাসের ইঞ্জিন। সাগর পথের পাশাপাশি আকাশ পথকেও ব্যবহার করছে পাচারকারীরা। প্রতিদিন ইয়াবার চালান আটক হচ্ছে, তারপরও থেমে নেই। বরং বেড়ে গেছে নিষিদ্ধ মরণ নেশা ‘ইয়াবা’ ব্যবসা। যাত্রীবাহি গাড়ীর পেছনে স্কট দিতেই সময় পার হচ্ছে বিজিবি-পুলিশের। এ কারণে ইয়াবা পাচারকারীরা বেপরোয়া হয়ে ওঠেছে বলে জানান সাধরণ মানুষ। তবে বিজিবির ভাষ্য মতে, তাদের পর্যাপ্ত পরিমাণ সৈনিক মজুদ আছে। স্কট দিতে কোন সমস্যা হয়না। অতীতের তুলনায় সড়ক পথে ইয়াবা পাচার কমেছে, বেড়েছে সাগরপথে। আর পুলিশ বলছে, রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে ইয়াবার পাচার বেড়েছে। জনবল সঙ্কটের ইয়াবা পাচার নিয়ন্ত্রণে তাদের হিমশিম খেতে হচ্ছে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: