টানা বর্ষণ ও পাহড়াী ঢলে সাতকানিয়ার কয়েকটি ইউনিয়ন প্লাবিত

এম এম রাজা মিয়া রাজু, ১০ জুলাই ২০১৯, বুধবার: টানা বর্ষণ ও পাহাড়ী ঢলে সাতকানিয়ার কয়েকটি ইউনিয়ন পানির নীচে তলিয়ে যায়।

বিশেষ করে নালা নর্দমা ভরাট করায় এই অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। পানি নিষ্কাশনের কোন ব্যবস্থা না থাকায় অতি সহসা নীচু অঞ্চল গুলো ডুবে য়ায়। এদিকে বাজালিয়ার বড়দুয়ারা এলাকার বান্দরবান কেরানীহাট সড়ক পানির নীচে তলিয়ে যাওয়ায় গাড়ী চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে। যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ায় এই সড়কের যাত্রীদের চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এছাড়া শঙ্খ নদী ও ডলু খালের পানি বিপদ সীমানার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ইতিমধ্যে নদীর কুলবতী অনেক বাসিন্দার ঘরবাড়ী পানিতে তলিয়ে যায়। অনেক ঘর নদীর ¯্রােতে তলিয়ে যাওয়ার প্রহর গুনছে।। নদীর কুলবর্তী বাসিন্দারা ঘরবাড়ী হারিয়ে যাওয়ার আশংকায় তাদের চোখে ঘুম নেই। তারা ছোট ছোট ছেলেমেয়েদের নিয়ে নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছে। অনেকে রাতের বেলায় ঘরবাড়ী তলিয়ে যাওয়ার আশংকায় আতœীয়স্বজন কিংবা অন্যত্রে আশ্রয় নিয়েছে। টানা বর্ষণ ও পাহাড়ী ঢলে যেসব ইউনিয়ন প্লাবিত হয়েছে চরতী আমিলাইষ নলুয়া বাজালিয়া ছদাহা ধর্মপুর ও কেওঁিচয়া। জানা যায় চরতী ইউনিয়নের ১নং দ্বীপ চরতীতে ৪টি দালান বিলীন হওয়ার পথে। দূরদূর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনের সড়ক সুইপুরা সড়ক পানির নীচে তলিয়ে যায়। আমিলাইষ সরওয়ার বাজারের পশ্চিম পার্শে¦ মেইন সড়কে পানি উন্নয়ন বোর্ডের বসানো জিও ব্যাগ প্রবল বর্ষণ ও ¯্রােতেভেঙ্গে যাওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছে। অপরদিকে ছদাহায় পানির ¯্রােতে রাস্তাঘাট ও ঘরবাড়ী ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। তাছাড়া বাজালিযার ৯নং ওয়ার্ডের চিতামুড়ায় পাহাড় ধসে পড়েছে। পাহাড়ের পাদদেশে যারা বসবাস করছে তাদেরকে উপজেলা চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিনের পরামর্শক্রমে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মোবারক হোসেন উক্ত এলাকা পরিদর্শন করে বসবাসকারীদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেন। এই সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন পি আই ও। সাতকানিয়ার সবচেয়ে বড় সড়ক খোদারহাট মৌলভী দোকান বাজালিয়া নয়াহাট শীলঘাটা সড়কে বিভিন্ন স্থানে গর্ত হয়েছে এবং কালভার্ট ভেঙ্গে যায়। গতকাল বুধবার বন্যাকবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন উপজেলা চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান দূরদানা ইয়াসমিন। চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন বলেন ক্ষতিগ্রস্থ এলাকায় শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়েছে। সরকার থেকে ১০ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। প্রাপ্ত চাল তাদের মধ্যে বিতরণ করার প্রস্তুত নেয়া হয়েছে। বন্যাকবলিত এলাকায় আর্থিক সাহায্য করার জন্য এলাকার বিত্তশালীদের এগিয়ে আসার জন্য তিনি আহবান জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*