জাতিসংঘের প্রতি জামায়াতের আহ্বান

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ওপর সরকারের অমানবিক আচরণের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে জাতিসংঘের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশjamat জামায়াতে ইসলামী। জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত আমীর মকবুল আহমাদ এক বিবৃতিতে এ আহ্বান জানান। বিবৃতিতে তিনি বলেন, “আওয়ামী মহাজোট সরকারের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড প্রতিরোধে এগিয়ে আসার জন্য আমি দেশবাসীর প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানাচ্ছি। সেই সাথে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থাসমূহ এবং বিশেষ করে জাতিসংঘকে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের অনুরোধ জানাচ্ছি।” ২০ দলীয় জোট নেত্রী ও বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে ৩০ জানুয়ারী গভীর রাতে বিদ্যুৎ সংযোগ এবং আজ ৩১ জানুয়ারী সকালে টেলিফোন, মোবাইল নেটওয়ার্ক, ডিস ও ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়ার ন্যক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে ও ক্ষোভ প্রকাশ করে দেয়া এই বিবৃতিতে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত আমীর মকবুল আহমাদ বলেন- “২০ দলীয় জোট নেত্রী ও বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে ৩০ জানুয়ারী গভীর রাতে বিদ্যুৎ সংযোগ এবং আজ ৩১ জানুয়ারী সকালে টেলিফোন, মোবাইল নেটওয়ার্ক, ডিস ও ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়ার ন্যক্কারজনক এবং অমানবিক ঘটনার আমি তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি ও ক্ষোভ প্রকাশ করছি। বেশ কয়েক দিন আগে থেকেই এ সরকারেরun_logo কয়েকজন মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ বেগম খালেদা জিয়াকে গ্রেফতারের হুমকি দিয়ে আসছিলেন। কিন্তু তীব্র গণআন্দোলনের ভয়ে ভীত হয়ে গতকাল একজন মন্ত্রী শ্রমিক সমাবেশে বেগম খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন, আজ আবার ভাত-পানি বন্ধ করার হুমকি প্রদান করেন। তার এ হুমকির পর ৩০ জানুয়ারী গভীর রাতে বেগম খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে বিদ্যুৎ সংযোগ এবং আজ ৩১ জানুয়ারী সকালে ডিস সংযোগ, টেলিফোন, মোবাইল নেটওয়ার্ক ও ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়া হয়। এ ঘটনায় প্রমাণ করে যে, সরকার পরিকল্পিতভাবে গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে নস্যাৎ করে দেয়ার জন্য এ ঘটনা ঘটিয়েছে। বাংলাদেশের অন্যতম বৃহৎ দল, বিএনপির চেয়ারপার্সন, ২০ দলীয় জোটের নেত্রী ও সাবেক প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে বিদ্যুৎ, ডিস, টেলিফোন, মোবাইল নেটওয়ার্ক এবং ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়ার ঘটনার নিন্দা জানানোর কোন ভাষা নেই। সরকারের এ ন্যক্কারজনক ঘটনা থেকে প্রমাণিত হয়, সরকার বিরোধীদলকে নির্মূল করে বাকশালী কায়দায় দেশ শাসন করতে চায়।”

Leave a Reply

%d bloggers like this: