জরুরি অবস্থা জারির পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়নি : প্রধানমন্ত্রী

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিরোধী জোটের সহিংসতা বন্ধে জরুরি অবস্থা জারির পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়নি। দেশের জনগণ আমাদের সঙ্গে আছেন। pmতাদের সঙ্গে নিয়ে আমরা পরিস্থিতির মোকাবিলা করব।’ বুধবার জাতীয় সংসদে নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ তাজুল ইসলাম চৌধুরীর এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী একথা বলেন। নাসিমা ফেরদৌসীর প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, গত জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহ থেকে বিএনপি-জামায়াত কোনো কারণ ছাড়াই অবরোধ-হরতালের নামে নিরীহ মানুষের ওপর বোমা নিক্ষেপ করে নৃশংসভাবে পুড়িয়ে মারছে। বাস, ট্রেন আর লঞ্চে আগুন দিয়ে সরকারি-বেসরকারি সম্পদের ক্ষতি করছে। ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন ইউনিটে আহত ব্যক্তিদের পোড়া চামড়ার গন্ধ আর তাদের আহাজারি যে কোনো মানুষের মনে দাগ কাটবে। তা সত্ত্বেও বিএনপি-জামায়াত সন্ত্রাসী কার্মকাণ্ড চালাচ্ছে। ১৫ লাখ পরীক্ষার্থীকে জিম্মি করে নাশকতা করছে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, জনগণের জানমালের নিরাপত্তা বিধানে সরকার দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। নাশকতাকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সহিংসতার সঙ্গে জড়িত ও এর হুকুমদাতাদের আইনের আওতায় আনতে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। নাশকতার পরিকল্পনকারী ও মদদদাতাদের তালিকা করে গ্রেপ্তার করার জন্য পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থাকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবি যৌথ অভিযান পরিচালনা করছে। নাশকতার সঙ্গে জড়িত দুর্বৃত্তদের বিরুদ্ধে মামলার পর গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করা হচ্ছে। গোয়েন্দা সংস্থা সম্ভাব্য নাশকতাকারীদের অবস্থান শনাক্ত করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সহযোগিতা করছে। নাশকতার সঙ্গে জড়িত দুর্বৃত্তদের গ্রেপ্তারে কমিউনিটি পুলিশের সহযোগিতা নেওয়া হচ্ছে। সরকার আহত-নিহত ব্যক্তিদের পরিবারের সহযোগিতায় ও চিকিৎসার পদক্ষেপ নিয়েছে। প্রশ্নোত্তর পর্বের আগে ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়ার সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশন শুরু হয়।

Leave a Reply

%d bloggers like this: