ছাত্রলীগ দুই নেতার মুক্তি চাই

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১০ মার্চ ২০১৯ ইংরেজী, রবিবার: বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সদস্য চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রসংসদ প্রতিনিধি ফরমান আহমদ জনি ও সাতকানিয়া উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মোঃ শফিউল আলম সোহেলকে গ্রেপ্তারের ঘটনায় তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ। এক বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, চট্টগ্রামে একসময় শিবিরের দুর্গ খ্যাত চকবাজার ও সাতকানিয়ায় ছাত্রলীগের রাজনীতি করা দুর্বিষহ ছিল। বিগত দিনে শিবিরের হাতে নির্যাতন, হামলা ও হত্যার শিকার হয়েছে অসংখ্য ছাত্রলীগ নেতাকর্মী। চট্টগ্রাম কলেজ ও মহসিন কলেজ শিবিরমুক্ত করার সংগ্রামে সাহসী নেতৃত্বে ছিল ফরমান আহমদ জনি। অন্যদিকে সাতকানিয়ায় শিক্ষা শান্তি প্রগতির পতাকাবাহী সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের শক্ত অবস্থান পাকাপোক্ত করতে লড়ে যাচ্ছেন মোঃ শফিউল আলম সোহেল। এসব এলাকায় ছাত্রলীগের হয়ে সক্রিয় প্রত্যেক নেতাকর্মী প্রতিনিয়ত জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সাংগঠনিক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। প্রতিহিংসার নোংরা রাজনীতির ষড়যন্ত্রে আজ সংগঠনের দুই ছাত্রনেতা কারাগারে, যা খুবই দুঃখজনক! গত শুক্রবার তাদের পৃথক পৃথক ভাবে মিথ্যা মামলায় গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানো হয়। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর এহেন অন্যায় কর্মকাণ্ডের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। অবিলম্বে দুই ছাত্রনেতার মুক্তি ও সাজানো মিথ্যা মামলা থেকে অব্যাহতি দিয়ে রাজপথে ফিরিয়ে দেয়ার জোর দাবি জানানো যাচ্ছে। এদিকে, তাদের গ্রেপ্তার নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে মনগড়া ও ভিত্তিহীন সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে, যা ইতিমধ্যে আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। সাংবাদিক ভাইদের প্রতি অনুরোধ, অনুসন্ধান পূর্বক সত্য প্রকাশের আহবান রইল।
দুই ছাত্রনেতার মুক্তি’র দাবিতে বিবৃতি দাতারা হলেন, চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ফারুক ইসলাম, ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সদস্য শুভ দাশ, নগর ছাত্রলীগ সদস্য রাফিদুল আবরার, আতিকুল হাকিম, সরকারি সিটি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা জাকারিয়া তাহের সাফায়েত, চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগ প্রতিনিধি মোক্তার হোসেন রাজু, মহসিন কলেজ ছাত্রলীগ প্রতিনিধি এয়ার খান সুমন, হাজেরা-তজু বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রলীগ প্রতিনিধি গিয়াস উদ্দিন তালুকদার আদর, সিডিএ কলেজ ছাত্রলীগ প্রতিনিধি রাশেদুল ইসলাম হৃদয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*