ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের গোলাগুলি চবিতে

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২১ জুলাই: কমিটিতে পদ না পাওয়ার ক্ষোভে বুধবার শাটল ট্রেনে ছাত্রলীগের হামলার পরে রাতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) ক্যাম্পাসে দুই গ্রুপের মাঝে ব্যাপক সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে।cu
বুধবার দিবাগত রাত সোয়া ১টার দিকে চবি ছাত্রলীগের কমিটিতে পদধারী ও পদবঞ্চিত নেতা-কর্মীদের মধ্যে এই সংঘর্ষ শুরু হয়। এসময় উভয় পক্ষের মুহুর্মুহু গোলাগুলিতে পুরো ক্যাম্পাস প্রকম্পিত হয়ে উঠে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত তিনজন গুরুতর আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।
বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, পূর্ণাঙ্গ কমিটি হওয়ার পর সভাপতি আলমগীর টিপু রাত সাড়ে ১২টায় প্রথমবারের মত ক্যাম্পাসে আসেন। তাকে বিশ্ববিদ্যালয় গোল চত্বর থেকে তার অনুসারি নেতা-কর্মীরা মিছিলের মধ্য দিয়ে শাহজালাল হলে এগিয়ে নেয়।
এসময় পদ বঞ্চিত নেতা-কর্মীরা ক্ষুব্ধ হয়ে সোহরাওয়ার্দী হলের সামনে অবস্থান নেয়। পরে উভয় পক্ষ পাল্টা-পাল্টি সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এসময় উভয় পক্ষের মধ্যে প্রায় ৩৫ রাউন্ড গুলি বিনিময়ের শব্দ পাওয়া যায়। এতে পদ বঞ্চিত পক্ষের আবির নামে এক নেতাসহ তিনজন আহত হয়েছে বলে জানা যায়। আহতদের চবি মেডিকেলে চিকিৎসা দেয়া হয়। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় আবিরকে পরবর্তীতে চট্টগ্রাম মেডিকেলে পাঠানো হয়।
অন্যদিকে মধ্য রাত হওয়ায় পুলিশের সংখ্যাও ছিল কম। তাই তারা তাৎক্ষণিক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে পারেনি। পরে অতিরিক্ত পুলিশ আসলে পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হয়। এসময় পদবঞ্চিত নেতা-কর্মীরা পদধারীদেরকে বেশ কিছুক্ষণ হলের মধ্যে অবরুদ্ধ করে রাখে বলেও জানা যায়।
এসময় পুরো ক্যাম্পাসে অবস্থানরত হল ও কটেজের সাধারণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। অনেকে ফেইসবুকে সকলকে সর্তক করে স্ট্যাটাস দেয়। এ বিষয়ে চবি প্রক্টর আলী আজগর চৌধুরী বলেন, ‘পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক রয়েছে। ক্যাম্পাসে পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। যে কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি মোকাবেলায় আমরা প্রস্তুত রয়েছি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*