ছাত্রলীগকে পরিহার করার সময় এসেছে: চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদল

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ০৯ অক্টোবর ২০১৯ ইংরেজী, বুধবার: ছাত্রলীগের সন্ত্রাস ও নৈরাজ্যের কারণে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো আজ সন্ত্রাসীদের অভয়ারণ্যে পরিণত হয়েছে। সাধারণ শিক্ষার্থীরা পড়ালেখার উদ্দেশ্যে ক্যাম্পাসে গেলেও ছাত্রলীগের উগ্রবাদী রাজনীতি চর্চার কারণে তাদের শিক্ষার পরিবেশ ব্যাহত হয়। ছাত্রলীগের হাতে নৃশংসভাবে হত্যার শিকার অসংখ্য ছাত্রনেতা। সে সকল হত্যাকান্ড সমূহের যথাযথ বিচার নিশ্চিত না হওয়ার পরিণাম হচ্ছে আজকের আবরার ফাহাদ।

কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপার্সন আপোষহীন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বুয়েটের মেধাবী শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে ছাত্রলীগ কর্তৃক হত্যার প্রতিবাদে আজ ৯ অক্টোবর বিকাল ৩ টায় চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদল নেতা সামিয়াত আমিন চৌধুরী জিসানের নেতৃত্বে নগরীর প্রবর্তক এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদল। উক্ত সমাবেশে নেতৃবৃন্দ উপরোক্ত কথা বলেন এবং বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও আবরার ফাহাদের হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবী জানান। এ সময় চট্টগ্রাম মহানগরীর আওতাধীন বিভিন্ন থানা, কলেজ ও ওয়ার্ড নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।


উক্ত বিক্ষোভ মিছিলোত্তর সমাবেশে বক্তারা বলেন, দেশ বিরোধী চুক্তির প্রতিবাদ করতে গিয়ে আজ এক নিরীহ শিক্ষার্থীকে ছাত্রলীগ কর্তৃক নির্মমভাবে হত্যার শিকার হতে হয়েছে। আবরার ফাহাদের অপরাধ ছিল দেশপ্রেম ও দেশের পক্ষে কথা বলা। দেশের পক্ষে কথা বলা মানুষগুলোকে যারা হত্যা করে তারা অবশ্যই দেশবিরোধী শক্তি হিসেবে পরিগণিত হয়। ছাত্রলীগ আজ আমরা দেশবিরোধী সংগঠন হিসেবে চিহ্নিত করছি। আমাদের উচিত সকল ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগকে পরিহার করে শিক্ষাঙ্গনে পড়ালেখার স্বাভাবিক পরিবেশ ফিরিয়ে আনা। ক্যাম্পাসে সহ অবস্থান ও সহমর্মিতার রাজনীতির চর্চা আরম্ভ করা। সময় হয়েছে ছাত্রলীগের সন্ত্রাস ও উগ্রবাদী রাজনীতিকে বয়কট করার। অতীতে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের অসংখ্য নেতাকর্মীকে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছিলো, যার বিচার আজও হয়নি। এমনকি থানায় মামলা পর্যন্ত গ্রহণ করা হয়নি। রাষ্ট্রের এমন বিদ্বেষমূলক আচরণের কারণেই আজ ছাত্রলীগ এত হিংস্র হয়ে উঠেছে। আমরা জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল সর্বদায় হত্যার রাজনীতি বিপরীতে দাঁড়িয়ে সহনশীল ও সহাবস্থানের রাজনীতি নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। অবিলম্বে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে বাংলাদেশের হারানো গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে হবে এবং বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদসহ ছাত্রলীগের হাতে বিভিন্ন ক্যাম্পাসে হত্যাকান্ডের শিকার সকল শিক্ষার্থীর হত্যার বিচার নিশ্চিত করতে হবে। না হয় নতুন প্রজন্ম একটি অনিরাপদ ভবিষ্যতের দিকে ধাবিত হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*