ছবি বিশ্বাস তখন খ্যাতির মধ্যগগনে

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১২ জুলাই ২০১৭, বুধবার: ছবি বিশ্বাস তখন খ্যাতির মধ্যগগনে। এক শীতের রাতে বাড়ি ফিরছিলেন। বাঁশদ্রোণীতে বাড়ির সামনে পৌঁছে দেখলেন ঠাণ্ডায় কাঁপতে কাঁপতে পাহারা দিচ্ছেন এক কনস্টেবল। তাঁকে দেখে ছবি বিশ্বাস বলে ওঠেন, ইস তোমার কী কষ্ট। যাও তুমি আমার বিছানায় গিয়ে শুয়ে পড়। আমি তোমার হয়ে পাহারা দিচ্ছি। তাঁর এহেন আবদারে মহা ফাঁপড়ে পড়েছিলেন ওই কনস্টেবল। পরে যদিও ছবি বিশ্বাসের স্ত্রীর হস্তক্ষেপে বিষয়টি মেটে। যে যার নিজের জায়গায় ফিরে যান।
ছবি বিশ্বাসকে ঘিরে রয়েছে এমন অজস্র কথা। শুধু অভিনয় নয়, সেইসঙ্গে অনেক বড় মনের মানুষ ছিলেন তিনি। আজ তাঁর ১১৬তম জন্মদিনে রইল তাঁর সম্পর্কে এমনই কিছু অজানা তথ্য –
* ছবিবিশ্বাসের আসল নাম শচীন্দ্রনাথ দে বিশ্বাস। ছবির মতো দেখতে ছিলেন বলে মা আদর করে ডাকতেন ছবি। পরে সেই নামটিই লোকমুখে ছড়িয়ে যায়।
*অনেকেই জানেন না রাজা শশাঙ্কদেবের বংশধর ছিলেন তিনি।
*ছোটোবেলা থেকে অভিনয়ের প্রতি ঝোঁক ছিল তাঁর। বাড়ির হলঘরে পর্দা টাঙিয়ে চলত অভিনয়।
*অভিনয়ে আসার আগে যাত্রা করতেন ছবি বিশ্বাস। ইউনিভার্সিটি ইনস্টিটিউটে শিশির ভাদুড়ির অভিনয় দেখে অভিনয়কে পেশা হিসেবে বাছার সিদ্ধান্ত নেন। শ্রী রঙ্গম মঞ্চে শিশির ভাদুড়ির নাটক যখন তেমন চলছিল না, সে সময় বিনা পারিশ্রমিকে শ্রী রঙ্গম মঞ্চে অভিনয় করতে এগিয়ে এসেছিলেন তিনি।
*কালী ফিল্মসের প্রতিষ্ঠাতা পি এন গঙ্গোপাধ্যায় ছবি বিশ্বাসকে অভিনয় জগতে প্রথম সুযোগ দেন। ১৯৩৬ সালে অন্নপূর্ণার মন্দির ছবির হাত ধরেই বড়পর্দায় প্রথম অভিনয় তাঁর।
*দীর্ঘ অভিনয় জীবনে ছবি বিশ্বাস কাজ করেছেন একাধিক ছবিতে। তার মধ্যে সত্যজিৎ রায়ের সঙ্গে কাজ করেছেন “জলসাঘর”, “কাঞ্চনজঙ্ঘা” ও “দেবী” ছবিতে। তাঁর অভিনয় যে ছবির মান বহুগুণ বাড়িয়ে তুলত তা বহুবার স্বীকার করেছেন খোদ সত্যজিৎ রায়।*বলিউডে অভিনয়ের একাধিক প্রস্তাব পেলেও বারবার তা ফিরিয়ে দিয়েছেন তিনি।
*রাজ কাপুর “একদিন রাত্রে” সিনেমার শুটিংয়ের জন্য ছবি বিশ্বাসকে মুম্বাই নিয়ে যেতে চেয়েছিলেন। কিন্তু, তিনি রাজি হননি। এরপর কলকাতায় পুরো ইউনিট এনে ছবি বিশ্বাসের অংশটুকু শুটিং করে নিয়ে যান রাজ কাপুর।
*শুধু অভিনয় নয়, “প্রতিকার”, “যার যেথা ঘর” নামে দুটো ছবি পরিচালনাও করেছেন ছবি বিশ্বাস।

Leave a Reply

%d bloggers like this: