চীনের ক্ষতিকর টক্সিনের মাত্রা কমাতে মাঠে এনভায়রোনমেন্টাল পুলিশ

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ০৮ জানুয়ারী ২০১৭, রবিবার: চীনের রাজধানী বেইজিংয়ে বাতাসে ছড়িয়ে পরা ধোঁয়া ও ক্ষতিকর টক্সিনের মাত্রা কমাতে মাঠে নেমেছে একদল এনভায়রোনমেন্টাল পুলিশ। বেইজিংয়ে ধোঁয়াশা আশঙ্কাজনক মাত্রায় বেড়ে যাওয়ায় বায়ুদূষণ মারাত্মক রূপ নিয়েছে। শহরের ভারপ্রাপ্ত মেয়রের বরাত দিয়ে আজ রবিবার বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।
মেয়র সাই কি বলেন, ‘বায়ু দূষণের জন্য দায়ী অভ্যন্তরীণ কারণগুলো যেমন, খোলা জায়গায় বারবিকিউ, নোংরা রাস্তা এসব খুঁজে বের করবে পুলিশ।’ মেয়র প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেন, চলতি বছর কয়লার ব্যবহার ৩০ শতাংশ কমানো হবে। এদিকে মেয়র প্রতিশ্রুতি দিলেও চীনের বিদ্যুৎ শক্তির প্রাথমিক উৎস কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র।
বেইজিংয়ের অনেক বাসিন্দাকে দিনের বেলা ঘর থেকে বের না হওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। তাদের অনেকটা বাধ্য করেই ঘরের মধ্যে আটকে রাখা হয়েছে। কারণ এই বাতাসে শ্বাস-প্রশ্বাস নিলে সেটি আরও বেশি ঝুঁকিপূর্ণ হবে।
কয়লাভিত্তিক কারখানার ধোঁয়া ও উত্তাপ এবং নির্মাণ অঞ্চলের ধূলার সঙ্গে বাতাসে আর্দ্রতা বৃদ্ধি ও বায়ু প্রবাহ কম থাকার কারণে বেইজিংয়ে এ ধরনের ধোঁয়াশা সৃষ্টি হয়।
মেয়রের বরাত দিয়ে চীনা গণমাধ্যম সিনহুয়া জানায়, ‘খোলা বাতাসে বারবিকিউ, আবর্জনা ও জৈববস্তু পোড়ানো, রাস্তায় ধূলা-ময়লা এসব বিষয়ে দেখভালের অভাবেই মূলত বায়ু দূষণ হচ্ছে। এছাড়া শীতের পর কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলো বন্ধ করে দেয়া হবে। কারণ তখন তাপবিদ্যুতের চাহিদা মেটানো সম্ভব হবে।’
এছাড়া পরিবেশ দূষণ করে এমন তিন লাখ যানবাহন বন্ধ করা হবে।বেইজিংয়ের স্কুল ও কিন্ডারগার্ডেনগুলোতে বায়ু বিশুদ্ধকরণ পদ্ধতি চালু করা হবে। বেইজিংয়ের সব স্কুল এই পরিস্থিতিতে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*