চাঁপাইনবাবগঞ্জে শিবির নেতাকে আটকের পর হত্যার অভিযোগ

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : চাঁপাইনবাবগঞ্জে ছাত্রশিবিরের এক নেতাকে আটকের পর গুলি করে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার রাতে র‌্যাব তাকে আটকের পর হত্যা করেছে shibirবলে দাবি করেছে ছাত্রশিবির। নিহত মো. আসাদুল্লাহ তুহিন চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার চরমোহন গ্রামের এনামুল হকের ছেলে। তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ সিটি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র ও কলেজ শাখার সভাপতি ছিলেন। ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সহকারী প্রচার সম্পাদক কামাল উদ্দিন নিউজগার্ডেন-কে তুহিনকে হত্যার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি অভিযোগ করেন, শিবির নেতা তুহিন সোমবার মা-বাবার সঙ্গে দুপুরের খাবার খাচ্ছিলেন। এ সময় র‌্যাব সদস্যরা তাকে আটক করে নিয়ে যায়। আটকের পর তুহিনের ওপর নির্যাতন করা হয়। পরে তাকে নিয়ে রাতভর বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ছাত্রশিবিরের আরো দুজনকে আটক করা হয়। অভিযানে রাতের কোনো এক সময় তুহিনকে গুলি করে হত্যার পর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেখে যায় র‌্যাব। সকালে মেডিকেল কলেজ থেকে ফোন করে তার মা-বাবাকে মৃত্যুর খবর জানানো হয় বলে দাবি করেন কামাল উদ্দিন। তবে এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত র‌্যাবের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

Leave a Reply

%d bloggers like this: