চসিক মেয়রের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা মনিটরিং

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১২ আগস্ট ২০১৯ইং, সোমবার: কোরবানির বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রম সরাসরি মনিটরিং করছেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। সোমবার (১২ আগস্ট) বিকালে আলমাস সিনেমা হলের মোড় থেকে কাজীর দেউড়ি হয়ে লাভ লেইন মোড় এলাকা, নিউমার্কেট, সদরঘাট, মাদারবাড়ি এলাকায় চলমান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম ঘুরে দেখেন মেয়র। এসময় তিনি সড়কের ডাস্টবিনগুলোতে কোরবানির বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রমে নিয়োজিতদের দিকনির্দেশনা দেন। মেয়র বিভিন্ন জোনের দায়িত্বপ্রাপ্তদের নির্ধারিত সময়ের আগেই নগর পরিচ্ছন্ন করার নির্দেশ দেন। তিনি জোনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কাউন্সিলরদের তদারকির নির্দেশনাও দেন।


মেয়র বলেন, প্রধান সড়কে বিকাল ৫টার মধ্যে বর্জ্য অপসারণ করা হয়েছে। রাত ৮টার মধ্যে অলি-গলির বর্জ্যও শতভাগ অপসারণ করা হবে। এবার যেহেতু ডেঙ্গু রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা যাচ্ছে, সেজন্য আমরা বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রমে আলাদা সতর্কতা অবলম্বন করেছি। কোথাও যাতে বর্জ্য বা পানি জমে না থাকে, সে ব্যাপারে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।
আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, চসিকের ২৭৩টি গাড়ি সার্বক্ষণিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কার্যক্রমে দায়িত্ব পালন করবে। পরিচ্ছন্ন কর্মীরা এই ঈদে পরিবার পরিজনের কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে শতভাগ আন্তরিকতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করছে।
নগর পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম পরিদর্শনের সময় চসিক প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত স্থায়ী কমিটির সভাপতি শৈবাল দাশ সুমন, কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব, কাউন্সিলর মোহাম্মদ হোসেন হিরণ, মেয়রের একান্ত সচিব মো. আবুল হাশেম, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল মহিউদ্দিন আহমেদ, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম মানিক, প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শফিকুল মান্নান সিদ্দিকী, অতিরিক্ত প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মোরশেদুল আলম চৌধুরী, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী ঝুলন কান্তি দাশ, সুদীপ বসাকসহ দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*