চন্দনাইশে পুকুর ভরাট করে পরিবেশ দূষণ করার খবর পাওয়া গেছে

চন্দনাইশ সংবাদদাতা : চট্টগ্রাম জেলার চন্দনাইশে পুকুর ভরাট করে পরিবেশ দুষণ করার খবর পাওয়া গেছে। সূত্র জানায় চন্দানাইশের রৌশনহাট এলাকার পশ্চিম এলাবাদের Pond১৪ জন অসহায় দিনমজুর পরিবারের বাড়ীভিটে ও পুকুর সন্ত্রাসী সিন্ডেকেটের নেতৃত্বে নিজেদের নামে বিএস সৃজন করে দখল করার পাঁয়তারা করছে। পশ্চিম এলাহাবাদ এর রওশনহাট এলাকার স্থানীয় রফিক মেম্বার গং সন্ত্রসী কায়দায় জোরপূর্বক জায়গা দখলের জন্য উঠে পড়ে লেগেছে। উক্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে নিতান্ত অসহায় পরিবারের পক্ষে ইতোপূর্বে তাদের বিভিন্ন অপকর্মের জন্য চন্দনাইশ থানার ডায়েরী নং ১৫২৭/১২ তাং ২৪/১১/১২, চন্দনাইশ সহকারী আদালত পটিয়াতে অপর মামলা নং ৪২/১৩, নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালে ২৪০/১৫ সহ পৃথক পৃথক মামলা দায়ের করেন যা বর্তমানে বিচারধীন আছে। সর্বশেষ চট্টগ্রাম এডিএমের আদালতে উক্ত জায়গায় আইন শৃঙ্খলার অবনতি না ঘটার জন্য ওসি চন্দানাইশকে নির্দেশ দেন। যার মামল নং ৩৫৭/১৫। এরা ছাড়াও আরো অনেকের ভিটেভাড়ী দখল করে নেয়ার অপচেষ্টা চালাচ্ছে এই রফিক গং। সে নিরিখে তার বিরুদ্ধে চন্দনাইশ সহকারী জজ আদালত পটিয়াতে অপর মামলা নং ৭/২০১৩, ১১/২০১৩, ২৮/২০১৩, ৩৭/২০০৫, ২৪/২০০৬ দায়ের করেন। ভূক্তভোগীরা হচ্ছেন আবুল কাসেম ড্রাইভার প্রকাশ বড় মিয়া, আবু ছিদ্দিক, আমিনুল ইসলাম, দিদারুল ইসলাম, মোজাফফর, ইউসুফ মিয়া, আহমদ হোসেন, আলমগীর, আবদুল মালেক, হাফেজ, ছফু, পেয়ারু, আবদুল কুদ্দুস ও ডেলি সেন সহ অনেকেই রফিক মেম্বারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন দফতরে অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগ দায়ের করার পরও ভূক্তভোগীরা কোন সুফল পাচ্ছে না বলে অভিযোগ করেন। বর্তমানে মামলার আশ্রয় নেওয়ায় প্রতিপক্ষগণ ক্ষিপ্ত হয়ে প্রাণে বধ করার জন্য মামলার বাদী গংকে হুমকি দিয়ে আসছে। এই ভূমিদস্যুর হাত থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য প্রশাসন ও বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠনের আশু দৃষ্টি কামনা করছেন অসহায় পরিবারগুলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*