চন্দনাইশে জেলা প্রশাসকের ব্যস্ততম দিন

চন্দনাইশ সংবাদদাতা: চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন বলেছেন, সারা বাংলাদেশের তুলনায় চন্দনাইশে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি খুবই ভাল। বিগত সব আন্দোলনে চন্দনাইশের কোথাও কোন বিশৃঙ্খল ঘটনা ঘটেনি। তাই প্রশাসন চন্দনাইশ নিয়ে কোন রকম দুশ্চিন্তাগ্রস্থ থাকে না। Chandanaish Pic-02তবে চন্দনাইশে বর্তমানে ইয়াবাসহ মাদকের ব্যবহার ও বিকিকিনি মাত্রাতিরিক্ত হারে বেড়ে মাদকে সয়লাব হয়ে পড়েছে। প্রথমে টেস্ট করে, পরে নিজেরাই সেবক হয়ে যায়। এ জন্য অভিভাবককে কষ্টের স্বীকার করতে হবে। ইয়াবা এইডস থেকেও ভয়াবহ। তবে পরিমাণে ছোট হওয়ায় বহন করা খুবই সুবিধা। তাছাড়া অনেকেই অর্থের লোভে টেকনাফ থেকে ৬০ টাকায় ইয়াবা কিনে চট্টগ্রাম ৩শ থেকে ৪শ টাকা, ঢাকায় ৫শ থেকে ৬শ টাকায় বিক্রি করে টেকনাফে অনেকে কোটিপতি হয়ে গেছে। ১ লক্ষ ইয়াবা বিক্রি করতে পারলে সে বিশাল বড় লোক হয়ে যাবে। তাই আপনার ছেলে-মেয়েকে ইয়াবা থেকে বাঁচাতে হলে অভিভাবক হিসেবে সচেতন থাকতে হবে। আমরা চাইনা ঐশীর মত আর কেউ পিতা-মাতাকে খুন করুক। এ সময় তিনি মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণে উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু আহমদ জুনুর দৃষ্টি আকর্র্ষণ করে বলেন, আপনি ক্ষমতাবান মানুষ। আপনাকে সবাই ভয় পায়। সে যত সন্ত্রাসী হোক আপনার পাশে দাঁড়াতে পারবে না। তাই আপনি মাদকসেবীদের ধরে পুলিশের হাতে সোপর্দ করুন। Chandanaish Pic-03মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণে জামায়াত ছাড়া সকল রাজনৈতিক দলকে একত্রিত হয়ে কাজ করার আহক্ষান জানান। মুক্তিযুদ্ধের এদেশে আমাদের সবাইকে রাজাকারদের প্রতিহত করতে হবে। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, গত ২১ অক্টোবর দুইজন কুখ্যাত যুদ্ধাপরাধীকে শাস্তি দেয়ায় দেশ অনেকটা কলঙ্কমুক্ত হয়েছে। এ জন্য আজকে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তির মানুষের জন্য আনন্দের দিন। তিনি আরো বলেন, ছেলে-মেয়েদেরকে কম বয়সে বিয়ে দিয়ে মৃত্যুর দিকে ঠেলে না দেয়ার আহক্ষান জানান। আর বাল্য বিয়ে প্রতিরোধে ইউএনও এবং এসিলেন্ডকে মোবাইল কোর্ট পরিচালনার উপর গুরুত্বারোপ করেন। এ ব্যাপারে পুলিশ প্রশাসনের সাথে সাধারণ জনগণকে সম্পৃক্ত হয়ে মাদককে জিরো ট্রলারেন্সে আনার জন্য কাজ করার আহক্ষান জানান। এ সময় তিনি বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বাল্য বিয়ে প্রতিরোধে সচেতন হওয়ার আহক্ষান জানান এবং লেখাপড়া করার জন্য পরামর্শ দেন। অন্যথায় বর্তমান প্রতিযোগিতার যুগে নিজেকে তৈরি করতে খুবই কষ্ট হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন। বাল্য বিয়ের কারণে ৭০ শতাংশ মহিলা সন্তান জন্মদানের সময় মৃত্যুবরণ করে থাকে। তিনি বলেন, ২০০৯ সালে শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় আসার পর ৩০ লক্ষ টন খাদ্যের ঘাটতি ছিল। তা মাত্র তিন বছরের মাথায় খাদ্যে ঘাটতি পূরণ করে খাদ্য রপ্তানি করছে। গত ৫ বছর আগে বাংলাদেশে ৩২ মেঘাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হত। বিগত ছয় বছরে ১১ হাজার মেঘাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন বাংলাদেশে বিদ্যুতের চাহিদা পূরণে সক্ষম হয়েছে। বছরের প্রথম দিন গত ৩৩ কোটি বই শিক্ষার্থীদের হাতে বিনামূল্যে তুলে দিয়েছে। আগামী বছরও ৩৭ কোটি বই শিক্ষার্থীদের তুলে দেয়ার পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন বলে তিনি জানিয়েছেন। Chandanaish Pic-04
গতকাল ২২ নভেম্বর সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত ব্যাপক কর্মসূচির পালন করেন চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন। প্রথমে উপজেলা সম্প্রসারিত ভবনের ফলক উন্মোচন করে সেখানে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার ১শ প্রকার নাস্তার প্রদর্শনী শেষে সভায় আপ্যায়নে মিলিত হন। পরে আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক এক মতবিনিময় সভা উপজেলা অডিটোরিয়ামে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সনজীদা শরমিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা সোলায়মান ফারুকী, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহনাজ বেগম, পৌর মেয়র আলহাজ্ব আয়ুব কুতুবী, দক্ষিণ জেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান, অফিসার ইনচার্জ আবুল কাসেম ভুইয়া, গাছবাড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদ সভাপতি মাহবুল আলম খোকা, উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু আহমদ জুনু। অন্যান্যদের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি উৎপল রক্ষিত, আ’লীগ নেতা কায়সার উদ্দিন চৌধুরী, বলরাম চক্রবর্তী, চেয়ারম্যান যথাক্রমে অধ্যাপক মো. আলী, আহমদ ছৈয়দ চৌধুরী, নুরুল ইসলাম, আহমদুর রহমান ভেট্টা, আবদুল্লাহ আল নোমান বেগ, প্রধান শিক্ষক বিজয় কৃষ্ণ ধর, বিজয়ানন্দ বড়–য়া প্রমুখ। পরে তিনি গাছবাড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে এক সংবর্ধনা সভা, দোহাজারী-হাশিমপুর-কাঞ্চনাবাদ-পটিয়া সড়কের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ও আলতাজ খানম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এক সভায় বক্তব্য রাখেন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: