চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের ম্যাগনেট কলিম সরওয়ার-মহসিন চৌধুরী

চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের ২০১৫ ও ১৬ সালের জন্য সভাপতি পদে কলিম সরওয়ার ও  সাধারণ সম্পাদক পদে মহসিন চৌধুরী নির্বাচিত হয়েছেন। উৎসবমুখর পরিবেশে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে।images প্রেসক্লাবের প্রেস কনফারেন্স রুমে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে শুরু হয়ে টানা বিকাল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলে। এবার প্রেসক্লাবের নির্বাচনে ১৫টি পদে মোট ৪২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা ২১৯ জন। বিশিষ্ট কবি ও নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কমিশনার ওমর কায়সার জানান, এ বছর সভাপতি পদে ৫ জন, সিনিয়র সহ সভাপতি পদে ৪ জন, সহ-সভাপতি পদে ৩ জন, সাধারণ সম্পাদক পদে তিনজন, যুগ্ম সম্পাদক পদে ৩ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। এছাড়া কার্যকরী সদস্যেও চারটি পদে ৮ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সকাল থেকে শুরু হওয়া নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন পরিচালনা কমিটি। তবে বিরূপpresc-2 আবহাওয়া ও হরতালের কারণে নির্বাচন গ্রহণের সময় আধা ঘন্টা বাড়িয়ে সাড়ে ৪টা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে নির্বাচন পরিচালনা কমিটি। ২১৯ ভোটারের মধ্যে ২১৩ জন স্থায়ী সদস্য তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। সভাপতি পদে ৮৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত দৈনিক পূর্বকোণের বার্তা সম্পাদক কলিম সরওয়ারের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী দৈনিক আজাদীর রাশেদ রউফ পেয়েছেন ৪৪ ভোট। দ্বিবার্ষিক সাধারণ সভার মুলতবি সভায় গতকাল রাতে নির্বাচন পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান কবি ওমর কায়সার আনুষ্ঠানিক ফলাফল ঘোষণা করেন। এতে সভাপতিত্ব করেন সিনিয়র সাংবাদিক নুরুল আমিন। ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী, ১১১ ভোট পেয়ে সিনিয়র সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন কাজী আবুল মনসুর। Newsgarden-Press club pic-1প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন জামালুদ্দীন ইউছুফ, মো. খোরশেদ আলম ও রতন কান্তি দেবাশীষ। ১২১ ভোটে সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন সালাহউদ্দিন মো. রেজা, প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন মনজুর কাদের মনজু। সাধারণ সম্পাদক পদে মহসিন চৌধুরী ৯৪ ভোট পেয়ে দ্বিতীয়বারের মত নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী দৈনিক আজাদীর শুকলাল দাশ পেয়েছেন ৬৩ ভোট। যুগ্ম সম্পাদক পদে সর্বোচ্চ ১৪৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন চ্যানেল আইয়ের ব্যুরো প্রধান ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী (চৌধুরী ফরিদ)। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী শহীদুল ইসলাম পেয়েছেন ৩৭ ভোট। press-4৮৮ ভোটে অর্থ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন তাপস বড়ুয়া রুমু। প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন মোহাম্মদ ফারুক, যীশু রায় চৌধুরী ও রশিদ মামুন। ৯৩ ভোটে সাংস্কৃতিক সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন শহীদুল্লাহ শাহরিয়ার। প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন নাসির উদ্দিন হায়দার ও বিশ্বজিৎ বড়–য়া। বর্তমান ক্রীড়া সম্পাদক নজরুল ইসলামকে হারিয়ে নির্বাচিত হয়েছেন গোলাম মাওলা মুরাদ। তিনি পেয়েছেন ১১৯ ভোট। অনুরূপ কান্তি দাশ টিটুকে হারিয়ে গ্রন্থাগার সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন মো. শওকত ওসমান। তিনি পেয়েছেন ১২৫ ভোট। ১১৭ ভোটে পুনরায় সমাজসেবা ও আপ্যায়ন সম্পাদক হয়েছেন মো. আইয়ুব আলী। প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন মো. নাছিরউদ্দিন চৌধুরী ও শিমুল নজরুল। ১৩১ ভোটে পুনরায় প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন আলমগীর সবুজ। প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন মিন্টু চৌধুরী। কার্যকরী সদস্য পদে ১১৪ ভোটে শহীদ উল আলম, ctg-d_19540১১৩ ভোটে ফারুক ইকবাল, ১১০ ভোটে শামসুল হক হায়দরী, ১০৮ ভোটে মোয়াজ্জেমুল হক নির্বাচিত হয়েছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন স্বপন কুমার মল্লিক, রূপম চক্রবর্তী, মো. আবিদ হোসেন ও কামাল উদ্দিন খোকন। মূলতবি সভায় বিজিত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক প্রার্থীরা গঠনমূলক প্রতিক্রিয়া জানান। এ সময় তারা বিজয়ীদের অভিনন্দন জানান এবং সদস্য হিসেবে ক্লাবের উত্তরোত্তর অগ্রযাত্রায় সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস দেন। রাত ১০টায় প্রেসক্লাবের ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল খালেক মিলনায়তনে মুলতবি অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে প্রেসক্লাবে দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

Leave a Reply

%d bloggers like this: