চট্টগ্রাম টেলিভিশন কেন্দ্র নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্র“তি আমলাতান্ত্রিক জটিলতার শিকার: মহিউদ্দিন চৌধুরী

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২০ জুলাই: চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি আলহাজ্ব এ.বি.এম মহিউদ্দিন চৌধুরী বাংলাদেশ টেলিভিশন চট্টগ্রাম কেন্দ্র প্রতিষ্ঠার উনিশ বছর পরও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত দৈনিক ছয় ঘন্টা সম্প্রচার না হওয়ার কোন বাস্তবমূখী উদ্যোগ গৃহীত Amir Photo 1না হওয়ায় অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেছেন, চট্টগ্রাম বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম নগরী ও অর্থনৈতিক হৃদপি-। চট্টগ্রামের জীবনধারা ও সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য-ইতিহাসকে আন্তর্জাতিক পরিম-লে উপস্থাপনের জন্য সিটিভি’র যে দায়বদ্ধতা রয়েছে সিটিভি তা পালন করতে ব্যর্থ হয়েছে। চট্টগ্রাম টেলিভিশন কেন্দ্র নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি আমলাতান্ত্রিক জটিলতার শিকার। এখানে দায়িত্বরত সরকারি কর্মকর্তারা নিজেদের মধ্যে নানাবিধ বিভাজন এবং আত্মকেন্দ্রিকতায় সরকারি অর্থের অপচয় করে নিজেদের আখের গুছিয়েছেন এবং চট্টগ্রামের শিল্পী কলাকুশলীদের প্রাপ্য সম্মান ও মর্যাদাকে ক্ষুন্ন করে চট্টগ্রামের সাংস্কৃতিক মানদ-কে অধপতিত করেছেন। আরো লক্ষণীয় যে, শিল্পীদের প্রতি পক্ষপাতদুষ্ট আচরণ করা হচ্ছে। নিজের ইচ্ছে অনুযায়ি কাউকে অনুষ্ঠান দেয়া ও না-দেয়ার প্রবণতা নৈতিকতা বিরোধী। আমি চট্টগ্রামের শিল্পী সমাজের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুত বাংলাদেশ টেলিভিশন চট্টগ্রাম কেন্দ্রের ছয় ঘন্টা সম্প্রচার চাই। সাথে সাথে শিল্পীদের মধ্যে যোগ্যতা ও দক্ষতা সাপেক্ষে সুষম অনুষ্ঠানমালার সিডিউল দেয়ারও দাবী জানাচ্ছি। আমি মনে করি তালিকাভূক্ত শিল্পী ও সঙ্গীত পরিচলকদের মধ্যে অনুষ্ঠানের সমবন্টন হলে আমাদের সাংস্কৃতিক চর্চার ক্ষেত্রটি উর্বর হবে। তাঁদের এই দাবীর প্রেক্ষিতে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে একটি মীমাংসিত সিদ্ধান্তে উপনীত হওয়ার পক্ষে আমি দৃঢ় মত প্রকাশ করছি।
আজ বিকেলে সম্মিলিত শিল্পী সমাজ চট্টগ্রামের সাথে তাঁর চশমাহিলস্থ বাসভবনে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা গুলো বলেন। এই সময় সম্মিলিত শিল্পী সমাজের নেতৃবৃন্দ তাঁকে বাংলাদেশ টেলিভিশন চট্টগ্রাম কেন্দ্রের বিভিন্ন ধরণের অনিয়ম, দূর্নীতি, স্বজনপ্রীতি ও শিল্পীদের মধ্যে বিভাজন ও বঞ্চনার নানাবিধ তথ্য-উপাত্ত উপস্থাপন করেন। তিনি সম্মিলিত শিল্পী সমাজ চট্টগ্রামকে আশ্বস্থ করেন যে তাদের দাবী অনুযায়ী বাংলাদেশ টেলিভিশন চট্টগ্রাম কেন্দ্রে যথাযথ যোগ্যতা ও দক্ষতার মাপকাঠি অনুযায়ী একজন মহাব্যবস্থাপক নিয়োগসহ অনুষ্ঠানের মানোন্নয়ন ও শিল্পীদের পেশাগত মান মর্যাদা রক্ষায় তিনি সার্বক্ষণিকভাবে সচেষ্ট থাকবেন।
সম্মিলিত শিল্পী সমাজ চট্টগ্রাম এর সভাপতি চিত্রনায়ক পংকজ বৈদ্য সুজনের সভাপতিত্বে সঙ্গীত পরিচালক ফরিদ বঙ্গবাসীর সঞ্চালনায় এই মতবিনিময় সভায় আরো অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নজরুল ইসলাম তিতাস, দীপেন চৌধুরী, আলমগীর আলাউদ্দিন, দীলিপ দাশ, নুরুল ইসলাম নুরু, ফজলুল কবির চৌধুরী, মুন্না ফারুক, দিদারুল ইসলাম, মায়া চৌধুরী, এস.বি সুমি, অচিন্ত্য কুমার দাশ, বোরহান উদ্দিন চৌধুরী টিপু, আবছার উদ্দিন অলি প্রমুখ।

Leave a Reply

%d bloggers like this: