চট্টগ্রাম গণ অধিকার ফোরামের আতœপ্রকাশ

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১৮ জানুয়ারী ২০১৭, বুধবার: চট্টগ্রামবাসীর নাগরিক অধিকার অর্জন ও রক্ষায় গঠিত চট্টগ্রাম গণ অধিকার ফোরামের আতœপ্রকাশ অনুষ্ঠান ফোরামের আহবায়ক, বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও প্রবীণ রাজনীতিবিদ আলহাজ্ব মোঃ জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে আজ ১৮ জানুয়ারী চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব ইঞ্জিনিয়ার আবদুল খালেক মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন প্রবীণ রাজনীতিবিদ ও আইনজীবি এডভোকেট কবির চৌধুরী, প্রখ্যাত সাংবাদিক ইসকান্দর আলী। ফোরামের যুগ্ম আহবায়ক এম, এ হাশেম রাজুর সঞ্চালনায় ২৮ দফা কর্মসূচীসহ মুল প্রবন্ধ পাঠ করেন বিশিষ্ট লেখক ও গবেষক এস, এম, নজরুল ইসলাম। সভাপতির বক্তব্যে মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম বলেন, জনসচেতনতা মাধ্যমে জনগণের মৌলিক অধিকার, মানবাধিকার ও নাগরিক অধিকার আদায় করতে হবে। ঐতিহ্যবাহী চট্টগ্রাম দেশের উন্নয়নে বৃহত্তর অবদান রাখা সত্বেও চট্টগ্রামের উন্নয়নে প্রতিটি সরকারই অবহেলা প্রদর্শন করে আসছে। জনগণ গ্যাস সংকট, বিদ্যুৎ সংকট, আইন শৃঙ্খলাজনিত সংকটে নিমজ্জিত। সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজী, জবরদখল ও মাদক সমস্যা জনজীবনকে দুর্বিষহ করে তুলেছে এতদসত্ত্বেও বর্তমান মেয়র জনগণের উপর অযৌক্তিক কর আরোপ করেছেন যা কোনভাবেই কাম্য নয়। শিক্ষাক্ষেত্রে অনৈতিক কার্যক্রম ভর্তি, পুনঃ ভর্তি, উন্নয়ন ফি নামে চলছে প্রকাশ্যে সাধারণ মানুষকে অর্থনৈতিকভাবে পঙ্গু করে দেওয়ার ষড়যন্ত্র। জনগণের হোল্ডিং ট্যাক্স ১৭% হারে আরোপ করা কোন ভাবে মেনে নেওয়া যায় না। বিগত দিনের পরিমাপ ও এলাকা ভিত্তিক ট্যাক্স এসেসমেন্ট করা হত। বর্তমানে তা ভঙ্গ করা হয়েছে এবং সকল নীতি ভঙ্গ করে দ্বৈত ট্যাক্স নীতির ধারা বন্ধ না করলে চট্টগ্রামবাসী ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলনে অংশ নেবেন। জনগণের ঐক্যবদ্ধ শক্তিকে কাজে লাগিয়ে মৌলিক অধিকার অর্জন ও রক্ষাই ফোরামের প্রধান লক্ষ্য বলে তিনি উল্লেখ করেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে এড. মোঃ কবির চৌধুরী বলেন, প্রাচ্যের রানী চট্টগ্রামকে বিমুখ রেখে দেশের সামগ্রিক কল্যাণ কখনো সুচিত হবে না। তাই আমরা যখনই যে অবস্থায় থাকি, চট্টগ্রামের সামগ্রিক উন্নয়নের জন্য সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকা একান্ত প্রয়োজন। তাই দলমত নির্বিশেষে চট্টগ্রামের বৃহত্তর স্বার্থে এই বিষয়টিকে কোন অবস্থায় অবহেলা করা যাবে না।
অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম গণঅধিকার ফোরামের নেতৃবৃন্দের মধ্যে যথাক্রমে- যুগ্ম আহ্বায়ক এস, এম, জাহাঙ্গীর আলম, আবু মোহাম্মদ চৌধুরী, মোহাম্মদ ইলিয়াছ, মুক্তিযোদ্ধা কামাল উদ্দিন, সদস্য সচিব ওসমান গণি সিকদার, কার্যনির্বাহী সদস্য যথাক্রমে কাজী মোঃ সেলিম, মোঃ আবদুর রশিদ, সাবেক ছাত্রনেতা মঞ্জুর রহমান চৌধুরী, ডা. আব্দুর শুক্কুর, এড. নার্গিস আলম চৌধুরী, এড. হালিমা খাতুন, আনোয়ার সাদেক, মোজাফ্ফর আহমেদ, এম, এ, হামিদ, মহিউদ্দিন বুকুল, অধ্যক্ষ সৈয়দ মোস্তাফা আলম মাসুম, প্রকৌশলী এম, কে নেওয়াজ চৌধুরী শাহিন, রাজনীতিবিদ মুজিবুর রহমান, মোঃ দিদারুল আলম, খোরশেদ আলম, মোঃ নাছির, ফিরোজ কবির লিটন, আবুল হোসেন, ব্যবসায়ী নেতা মুজিবুর রহমান, নুর উদ্দিন নুরু, জিএম সায়দুল হক প্রমুখ। বক্তাগণ বলেন-গণঅধিকার ফোরামের ২৮ দফা কর্মসূচী চট্টগ্রামের গণমানুষের প্রাণের দাবী। এ দাবীগুলো চট্টগ্রামবাসীর অধিকার। অধিকার কেউ হাতে তুলে দেয় না, অধিকার আদায় করে নিতে হয়। তাই দল মত নির্বিশেষে ভুক্তভোগী জনগণের ঐক্যবদ্ধশক্তি একান্ত জরুরী। ব্রিটিশ আমলে বলা হতো “সবার আগে চট্টগ্রাম” স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় বলা হতো “বীর চট্টগ্রাম” এবং ঐতিহাসিক ধর্মীয়ভাবে বলা হয় “বারআউলিয়া পূণ্যভুমি চট্টগ্রাম”। এই তিনটি কথাকে সামনে নিয়ে চট্টগ্রাম গণঅধিকার ফোরাম এর কর্মকান্ডকে সামনের দিকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য সর্বস্তরের সচেতন নাগরিকবৃন্দের প্রতি আহবান জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*