চট্টগ্রামে ৫০ দিনব্যাপী ট্রেড ভিত্তিক প্রশিক্ষণ কোর্স

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ০১ জুন ২০১৭, বৃহস্পতিবার: সমাজসেবা অধিদফতর চট্টগ্রাম আয়োজিত হিজড়া জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন শীর্ষক কর্মসূচীর আওতায় ৫০ দিনব্যাপী বিভিন্ন ট্রেড ভিত্তিক প্রশিক্ষণ কর্মসূচীর সমাপনী অনুষ্ঠান গত বুধবার সকাল ১১ টায় আঞ্চলিক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, মুরাদপুর চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত হয়। সমাজসেবা অধিদফতর চট্টগ্রামের উপপরিচালক বন্দনা দাশের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক জনাব মো: জিল্লুর রহমান চৌধুরী, বিশেষ অতিথি মানসিক প্রতিবন্ধী শিশুদের প্রতিষ্ঠান রউফাবাদ চট্টগ্রামের উপপরিচালক মো: শহীদুল ইসলাম ও জাতীয় সমাজকল্যাণ পরিষদের সদস্য এস এম মোরশেদ হোসেন। অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রার তৌহিদুল ইসলাম, রেজিষ্ট্রেশন অফিসার আফতাব উদ্দিন চৌধুরী, সমাজসেবা অফিসার কামরুল পাশা ভূইয়া, মো: আবুল কাশেমসহ ৫০ জন প্রশিক্ষণার্থী হিজড়া উপস্থিত ছিলেন। জেলা সমাজসেবা কার্যালয় চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক ওমর ফারুকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা সমাজসেবা কার্যালয় চট্টগ্রামের উপপরিচালক বন্দনা দাশ। প্রশিক্ষণার্থীদের অনুভূতি ব্যক্ত করে বক্তব্য রাখেন মিথিলা হিজড়া। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন কর্ণফুলী হিজড়া সংঘের সভাপতি পায়েল হিজড়া। সভায় জানানো হয় বর্তমান সরকার হিজড়া জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্যে ২০১২-১৩ অর্থসাল হতে প্রতি বৎসর ৫০ জন করে ২০০ জন হিজড়াকে বিভিন্ন ট্রেডে প্রশিক্ষণ প্রদান করেন। পর্যায়ক্রমে তাদেরকে সমাজে পুর্নবাসনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। অনুষ্ঠানে হিজড়াদের কিছু দাবী দাওয়া ও সমস্যার কথা উপস্থাপন করা হয়। সভায় প্রধান অতিথি বলেন, বাংলাদেশের সংবিধানে সকল নাগরিকের সমান অধিকার নিশ্চিত করা হয়েছে। তিনি হিজড়াদের বক্তব্যে অভিভুত হয়ে বলেন তারা সমাজের একটি অংশ। তিনি কাজে বিশ্বাসী কাজ করলে সফলতা আসবে তাই হিজড়াদের রাস্তায় রাস্তায় ঘুরাঘুরি না করে নিজেদের কর্মসংস্থানের জন্য কাজ করার অনুরোধ জানান। বর্তমান সরকার ভিক্ষুকমুক্ত দেশ গঠন করার লক্ষ্যে কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। হিজড়ারা যাতে রাস্তায় বা দোকানে টাকা না তুলে নিজেদেরকে আত্মকর্মংস্থানের জন্য এই প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে নিজেদের সমাজে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার জন্য পরামর্শ প্রদান করেন। তিনি হিজড়াদের কল্যাণে কি কর্মসূচি গ্রহণ করা যায় তা জানার জন্য হিজড়াদের সমন্বয়ে একটি প্রতিনিধি দল তাহার সাথে সাক্ষাত করার জন্য অনুরোধ জানান। জেলা প্রশাসক হিজড়াদের জন্য বাসস্থানের ব্যবস্থা সহ তাদের কল্যাণে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করার জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন বলে জানান। এছাড়া সমাজসেবা অধিদফতরের মাধ্যমে হিজড়াদের আত্মকর্মসংস্থান প্রকল্প বাস্তবায়নের লক্ষে একটি প্রকল্প গ্রহণ করার জন্য পরামর্শ প্রদান করেন। এ প্রকল্পের জন্য পর্যায়ক্রমে তিনি ৫ লক্ষ টাকা প্রদান করার জন্য প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন। তিনি প্রশিক্ষণার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, প্রশিক্ষণকে কাজে লাগিয়ে নিজেদের আয়বর্ধক কর্মসূচি গ্রহণ করে সমাজে প্রতিষ্ঠিত হতে হবে। অনুষ্ঠান শেষে প্রধান অতিথি প্রত্যেক প্রশিক্ষণার্থীকে সনদপত্র ও দৈনিক ৩০০ টাকা হারে ১৫ হাজার টাকা প্রশিক্ষণ ভাতা ও প্রশিক্ষণ শেষে কর্মসংস্থানের জন্য ১০ হাজার টাকা মোট ২৫, হাজার টাকা প্রদান করেন। অনুষ্ঠানে হিজড়াদের তৈরীকৃত একটি ওয়ালমেট প্রদান অতিথিকে উপহার প্রদান করা হয়। উল্লেখ্য ৯ এপ্রিল‘১৭ইং হতে ৫০ দিনব্যাপী পোষাক সেলাই-১৪ জন, বিউটি ফিকেশন-১৫ জন, হস্তশিল্প-১৫জন ও কম্পিউটার-৬ জন মোট ৫০ জন প্রশিক্ষণার্থী প্রশিক্ষণ কোর্সে অংশগ্রহণ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*