চট্টগ্রামে সাংস্কৃতিক, ক্রীড়া সংগঠক ও লেখক বাবুর উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৩ ডিসেম্বর, শুক্রবার: একজন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও ক্রীড়া সংগঠকের ওপর হামলা মানে গোটা সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া অঙ্গনের ওপর হামলা করার সামিল। এই অপমান গোটা সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া অঙ্গনের সংগঠকদের লাঞ্চিত ও অপমানিত করেছে। কোনো সভ্য জাতি সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও ক্রীড়া সংগঠকের ওপর সন্ত্রাসী হামলাকে প্রশ্রয় দিতে পারে না। চট্টগ্রামে সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, ক্রীড়া, মানবাধিকার সংগঠকের ওপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে আয়োজিত মানববন্ধনে এসব কথা বলেন বক্তারা। বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতা-কর্মীরা এই মানববন্ধনে যোগ দেন। বক্তারা ন্যক্কারজনক এ হামলার সঙ্গে জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শান্তি নিশ্চিত করতে সরকার ও প্রশাসনের প্রতি জোর দাবী জানান।
স্বাধীন সাংস্কৃতিক একাডেমীর চেয়ারম্যান, আবাহনী সমর্থক গোষ্ঠীর সভাপতি, লেখক, গল্পকার ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সাহাবউদ্দীন হাসান বাবুর (হৃদয় হাসান) উপর রক্তাক্ত সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে আজ ২৩ ডিসেম্বর শুক্রবার সকাল ১১ টায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের উদ্যোগে এক সম্মিলিত মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। স্বাধীন সাংস্কৃতিক একাডেমীর জেনারেল সেক্রেটারী রেহানা চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ প্রফেসর হাসিনা জাকারিয়া বেলা। সাংবাদিক কামরুল হুদার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন কবি সাংবাদিক নাজিম উদ্দিন শ্যামল, গীতিকার লিয়াকত হোসেন খোকন, কবি সাংবাদিক শাহিদ হাসান, ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব, চট্টগ্রাম আবাহনী সমর্থক গোষ্ঠীর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কামাল আহমেদ, চট্টগ্রাম গ্রুপ থিয়েটর ফোরামের সভাপতি ও মঞ্চনাট্য দল সমীকরণ থিয়েটরের সভাপতি আলোক মাহমুদ, স্বাধীন সাংস্কৃতিক একাডেমীর ভাইস চেয়ারম্যান জহির উদ্দিন ইমরুল কায়েস, বঙ্গবন্ধু সমাজ কল্যাণ পরিষদ মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক সালাহউদ্দিন আহমেদ, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আবদুর রহীম ফারুক, চন্দনাইশ ছাত্র সমিতির সাবেক সভাপতি, সংগঠক ও মানবাধিকার নেতা নোমানউল্লাহ বাহার, রাশেদ ইবনে ফরিদ, কবি রমেশ চন্দ্র সানা, মো. বেলাল মিয়া, ভোক্তা অধিকার কমিশন নেতা সোহাগ খান, সংগীত শিল্পী কাউছার আহমেদ, ক্রিকেট কোচ নজরুল ইসলাম রবিন, বিশিষ্ট লেখিকা ও সংগীত শিল্পী জাহানারা মাহবুব, ফটোজার্নালিস্ট ওসমান জাহাঙ্গির, আবু জাবেদ, ফটোজার্নাালিস্ট ইমরান, বিশিষ্ট লেখিকা মীর নাজমিন, প্রগতি সংঘের সভাপতি মাসুদ করিম, কুতুব উদ্দিন, মো. ইসমাঈল, মো. উচ্ছ্বাসের সভাপতি আজিম উদ্দিন, শাহাদাত হোসেন তাহসিন, রাকিব খান, বায়েজিদ খান, মো. রাকিব খান, হৃদয় মুন্সি, আরিফ হাওলাদার, ক্রিকেটার আত্তাহি খান, শাহাদাত হোসেন দিপু, মো. হাসান, শাওন চৌধুরী, বিবি কুলছুম প্রমুখ। সবশেষে রক্তাক্ত হামলার শিকার সাহাব উদ্দিন হাসান বাবু মর্মান্তিুক লোমহর্ষক ঘটনার বর্ণনা দেন।
উল্লেখ্য নাসিরাবাদ সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের সূবর্ণ জয়ন্তী উৎসবের কার্যক্রম চলাকালীন সময়ে পাঁচলাইশ থানাধীন সাবেক অতিথি কমিউনিটি সেন্টারের নির্মাণাধীন ভবনে গত ১৪ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৫.৪০ মিনিটে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে নির্মম সন্ত্রাসী হামলা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*