চট্টগ্রামে বিশ্ব সুন্নী আন্দোলনের বিশাল ঈদে আজম মহাসমাবেশ

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ০৩ ডিসেম্বর, শনিবার: সমগ্র মানবমন্ডলীর সর্বকল্যাণ ও মুক্তির দিশায় প্রাণাধিক প্রিয়নবীর শুভাগমনের দান ও লক্ষ্য সত্যের মুক্ত প্রবাহ এবং অপশক্তির গ্রাস থেকে দুনিয়ার প্রতিটি মানুষের অধিকার-স্বাধীনতা-মানবতা ফিরে পাওয়ার একমাত্র পথ প্রিয়নবী প্রদত্ত frameসর্বজনীন মানবিক রাষ্ট্রব্যবস্থা ও মুক্ত মানবতার অবিভাজ্য বিশ্বব্যবস্থা শান্তিময় জীবন ও রহমতের দুনিয়া খেলাফতে ইনসানিয়াত- ইমাম হায়াত দয়াময় আল্লাহতাআলার পরম রহমত হিসেবে সমগ্র মানবমন্ডলীর দোজাহানের সর্বকল্যাণ ও মুক্তি সাধনায় দুনিয়ায় প্রাণাধিক প্রিয়নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের শুভাগমন ঈদে আজম উদ্যাপন উপলক্ষে বিশ্ব সুন্নী আন্দোলনের উদ্যোগে আজ চট্টগ্রাম লালদীঘী ময়দানে এক বিশাল সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
এতে প্রধান মেহমান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ আলেমে দ্বীন, ইমামে আহলে সুন্নাত, মুজাদ্দিদে জামান, ওস্তাজুল ওলামা, শায়খুল হাদিস, মুর্শেদে হাক্কানী, ওলীয়ে রাবক্ষানী, হাফেজ আল্লামা হজরত সৈয়দ ছাইফুর রহমান নিজামী শাহ্। এতে সভাপতিত্ত্ব করেন এবং দিকনির্দেশনামূলক মূল বক্তব্য রাখেন বিশ্ব সুন্নী আন্দোলন এর প্রতিষ্ঠাতা এবং সর্বজনীন ও মানবিক রাষ্ট্র ও বিশ্বব্যবস্থা- বিশ্ব ইনসানিয়াত বিপ্লব এর প্রবর্তক আল্লামা ইমাম হায়াত।
আল্লামা শাহ্ আরেফ সারতাজ এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত এ মহা সমাবেশে বিশেষ মেহমান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইমামে আহলে সুন্নাত হযরত আজিজুল হক শেরে বাংলা (রহঃ) এর সাহেবজাদা আল্লামা আমিনুল হক আল কাদেরী, ইমামে আহলে সুন্নাত আল্লামা আবেদ শাহ মোজাদ্দেদী (রঃ) এর সাহেবজাদা পীর আল্লামা সৈয়দ জাহান শাহ, ওস্তাজুল ওলামা আল্লামা সৈয়দ নুরুল মানোয়ার (অধ্যক্ষ জামেউল উলুম কামেল মাদ্রাসা, গহিরা-চট্টগ্রাম), পীরে তরিকত আল্লামা সৈয়দ আব্দুশ শুকুর রায়হান আজীজী (ধর্মপুর দরবার শরীফ, সাতকানীয়া-চট্টগ্রাম), অধ্যাপক আল্লামা ডঃ আতাউর রহমান মিয়াজী (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়), আল্লামা খন্দকার গোলাম মওলা (গভর্নর ইসলামিক ফাউন্ডেশন), অধ্যাপক আল্লামা ডঃ আহসান উল্লাহ সায়ীদ (ভাইস চ্যান্সেলর, ইসলামিক আরবী বিশ্ব বিদ্যালয়), পীরে তরিকত আল্লামা মোশাররফ হোসেন হেলালী (হাক্কানী আঞ্জুমান হেলালীয়া দরবার শরীফ, ঢাকা), পীরে তরিকত আল্লামা তাজুল ইসলাম চাঁদপুরী (দারুল হাবীব জামেয়া ইসলামীয়া, কুতুবখালী-ঢাকা ), শায়েখ মুসলিম উদ্দিন আহমদ নুরি শাহ্ আল কাদেরী(ফকির বাড়ি দরবার শরিফ, মিরপুর-ঢাকা), পীরে তরিকত আল্লামা আলমগীর হোসাইন যুক্তিবাদী (মহাসচিব, জাতীয় ইমাম সমিতি, মালিবাগ-ঢাকা), শায়খুল হাদিস মুফতী আল্লামা ডঃ আনোয়ার হোসাইন সাইফী(জামেয়া ইসলামীয়া, মুগদা-ঢাকা), ডঃ আল্লামা অধ্যাপক নুরুন্নবী (এশিয়ান ইউনিভার্সিটি, ঢাকা)। আরও সহ¯্রধিক সম্মানিত পীর মাশায়েখ ওলামায়ে কেরাম, চিন্তাবিদ, গবেষক, দার্শনিক ও শিক্ষাবিদবৃন্দ এতে উপস্থিত ছিলেন।
সভাপতির ভাষণে সমাবেশের মূল বক্তা আল্লামা ইমাম হায়াত বলেন, দয়াময় আল্লাহতাআলার সম্পর্ক ও বন্ধনে অপরিহার্য্য অবলম্বন হিসেবে সর্বগুণ-সর্বজ্ঞান-সর্বকল্যাণের উৎস রূপে দুনিয়ায় আল্লাতাআলার মহাসত্ত্বার পবিত্র নূর প্রাণাধিক প্রিয়নবীর শুভাগমন সত্য-জীবন ও মানবতার অতুলনীয় মহা ঈদ ঈদে আজম। তিনি বলেন, প্রাণাধিক প্রিয়নবীর শুভাগমন স্বয়ং আল্লাহতাআলার নিজেকে প্রকাশ করা এবং মানবমন্ডলীর সাথে আল্লাতাআলার সংযোগ ও বন্ধন তৈরি করা।
ঈমানী অস্তিত্ব্ ও মুক্তির উৎস হিসেবে প্রাণাধিক প্রিয়নবীর শুভাগমন ঈদে আজমের দান ও লক্ষ্য উপলব্ধির আহক্ষান জানিয়ে ইমাম হায়াত বলেন, ঈমান-দ্বীন-নাজাতের প্রবাহধারা রক্ষায়, দুনিয়ার প্রতিটি মানুষের জন্য স্বাধীনতা-অধিকার-মর্যাদা-সমৃদ্ধি-নিরাপত্তা ও জীবনের সকল আলোকদিশা প্রদান, সকল অপশক্তির মিথ্যা-মূর্খতা-আঁধার-দাসত্ত্ব-পাশবতা-বর্বরতা-সন্ত্রাস-পরাধীনতা-স্বৈরতা-দস্যুতা থেকে আত্মা ও জীবনের সব দিকে উদ্ধার ও মুক্তির লক্ষ্যে এ মহান শুভাগমন।
ইমাম হায়াত বলেন, ঈদে আজম পবিত্র কলেমার ভিত্তিতে রেসালাত কেন্দ্রিক তাওহীদ ভিত্তিক যে ঈমানী সত্ত্বা ও জীবনের ভিত্তিতে বস্তুর উধের্ক্ষ যে মুক্ত স্বাধীন মানবসত্ত্বা দান করেছে এবং মুক্ত মানবতার যে কল্যাণময় দুনিয়া দান করেছে, বিভিন্ন বাতেল-জালেম অপশক্তি তা বিনষ্ট ও উৎখাত করে কূফরিয়াত ও হায়ওয়ানিয়াতের আঁধার জীবন ও রূদ্ধ দুনিয়া কায়েম করেছে। তিনি বলেন, ইসলামের ছদ্মনামে আবির্ভূত বাতেল ফেরকা, বস্তুবাদী মতবাদ এবং বিভিন্ন ধর্মের নামে অধর্ম উগ্রবাদ দুনিয়ায় প্রিয়নবীর শুভাগমনের দান ও লক্ষ্য থেকে মানবমন্ডলীকে বঞ্চিত করার লক্ষ্যে দোজাহানে ধক্ষংসের কাঠামো তৈরি করেছে।sunni-sommelon
ইমাম হায়াত সকলকে স্মরণ করিয়ে দেন যে, প্রাণাধিক প্রিয়নবীর শুভাগমন ঈদে আজমের দান ঈমান-দ্বীন-জীবন-ন্যায়-অধিকার-স্বাধীনতা হরণের লক্ষ্যে ঈমানীয়াত ও ইনাসানিয়াত বিণাশী বিভিন্ন বাতেল জালেম অপশক্তি বিভিন্ন নামে দুনিয়াব্যাপী তাদের একক গোষ্ঠিবাদী স্বৈর দস্যুতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছে। তিনি বলেন, বিশেষ ভাবে একক ধর্ম-জাতি-গোত্র-ভাষা-বর্ণ-শ্রেণী ভিত্তিতে সৃষ্ট একক গোষ্ঠিবাদী অপরাজনীতি ও স্বৈরতন্ত্রই প্রাণাধিক প্রিয়নবীর শুভাগমনের দান ও কল্যাণ প্রবাহ থেকে সমগ্র মানবমন্ডলীকে বঞ্চিত রাখার জন্য বাতেল জালেম অপশক্তির কার্যকরি হাতিয়ার।
প্রাণাধিক প্রিয়নবীর শুভাগমনের দান সত্য ও কল্যাণের রূদ্ধ প্রবাহ ধারা এবং মানবজীবনের হারানো সত্ত্বা-স্বাধীনতা-অধিকার পুনরুদ্ধার করার লক্ষ্যে অপশক্তির সব চক্রজাল নস্যাত করে প্রিয়নবী প্রদত্ত মুক্ত জীবনের মুক্ত দুনিয়া গড়ে তোলার বিপ্লবী লক্ষ্যে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহক্ষান জানিয়ে ইমাম হায়াত বলেন, প্রিয়নবীর দেয়া সকল মানুষের জন্য সর্বকল্যাণময়, ধর্ম-জাতি নির্বিশেষে সব মানুষের সম অধিকার-নিরাপত্তা-স্বাধীনতা-মালিকানা ভিত্তিক, দ্বীনী মূল্যবোধ ভিত্তিক, অসাম্প্রদায়িক, একক গোষ্ঠির স্বৈরতামুক্ত, সর্বজনীন মানবিক রাষ্ট্রব্যবস্থা ও অখন্ড মানবতার অবিভাজ্য বিশ্বব্যবস্থা খেলাফতে ইনসানিয়াতই বাতিল জালিম অপশক্তির রূদ্ধতার ফাঁস থেকে জীবন ও মানবতার মুক্তির একমাত্র উপায়, মহান ঈদে আজমের লক্ষ্য উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন ও আলোকপ্রবাহ জারি রাখার একমাত্র পথ। প্রেমময় রহমতময় পবিত্র সালাতু সালামের মাধ্যমে মহাসমাবেশ সুসম্পন্ন হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*