চট্টগ্রামে প্রজন্ম ইনফরমেশন এন্ড কমিউনিকেশন টেকনোলজি’র আত্মপ্রকাশ

OLYMPUS DIGITAL CAMERAনিউজগার্ডেন ডেস্ক : মুক্তবুদ্ধি চর্চার সংগঠন “প্রজন্ম চট্টগ্রাম’ কর্তৃক পরিচালনায় এবং পরিবেশবান্ধব পরিকল্পিত সমাজ উন্নয়ন ও আত্ম-নির্ভরশীল মানবকল্যাণমূলক গবেষণাধর্মী প্রতিষ্ঠান “প্রজন্ম চট্টগ্রাম ট্রাস্ট এন্ড রিসার্চ সেন্টার’র সার্বিক সহযোগিতায় বিজ্ঞান ও তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-সংগঠন “প্রজন্ম ইনফরমেশন এন্ড কমিউনিকেশন টেকনোলজি (পিআইসিটি) আত্মপ্রকাশ ও  উদ্বোধনী অনুষ্ঠান গত ১৯ ডিসেম্বর বিকাল ৩ টায় বহদ্দারহাট মেরিট বাংলাদেশ স্কুল এন্ড কলেজ মিলনায়তনে সংগঠনের ভাইস চেয়ারম্যান ও চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সাবেক সহ-সভাপতি এস এম শফিউল হক বাদলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। পিআইসিটির শুভ উদ্বোধক প্রজন্ম চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় সংসদের চেয়ারম্যান ও কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ আবুল কাসেম বলেন সম্মিলিত কর্মপ্রয়াসে প্রয়োজন দক্ষ সু-সংগঠন ও সঠিক সাংগঠনিক কার্যক্রম। অপসংস্কৃতিতে তরুণ-তরুণীর মেধা-মনন যখন আক্রান্ত ঠিক তেমনিই এই কঠিন দুঃসময়ে “প্রজন্ম চট্টগ্রাম” তার স্ব স্ব সংস্কৃতি ও বিভিন্ন সৃষ্টিশীল কর্মকাণ্ডের মধ্যে সর্বদা অঙ্গীকারাবদ্ধ। এছাড়া ছাত্র-ছাত্রীদের অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে সর্বদা থেকেছে প্রতিবাদ মূখর। এইভাবে এই সংগঠন  প্রতিষ্ঠানিক ও সামাজিক বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের মধ্যে দিয়ে এগিয়ে চলছে ঘোষিত লক্ষ্যের দিকে। এছাড়া পিআইসিটি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে বলে তিনি আশা রাখেন। প্রধান বক্তা হিসেবে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় বিজ্ঞান অনুষদের প্রফেসর ড. মোঃ নুরুল মোস্তফা বলেন, “পিআইসিটি চট্টগ্রামের আইসিটির বিভিন্ন খাতে সেবা প্রদান করবে। যে কোন ধরনের সফটওয়্যার প্রস্তুত, 2ওয়েবসাইট ডিজাইন, ই-কমার্স সলিউশন, উন্নতমানের গ্র্যাফিকস ডিজাইন, নেটওয়ার্ক সলিউশন এবং ডোমেন ও হোস্টিং সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পিআইসিটি বিশ্বস্ততার সাথে সেবা প্রদান করবে এই প্রতিষ্ঠান। খ্যাতিমান তথ্য-প্রযুক্তিবিদ ড. নূরুল মোস্তফা আরো বলেন আজ ব্যক্তিগত উদ্যোগে আউটসোর্সিং আয় বছরে প্রায় ১ কোটি ডলার। যদি সরকারি পৃষ্টপোষকতা থাকে তাহলে এ আয় হাজার কোটি ডলার ছাড়িয়ে যেতে পারে। বর্তমানে আইসিটিতে ইইএফ নামে সরকারের একটি আর্থিক সহায়তা প্রদান করার ব্যবস্থা আছে। এই ফান্ডটি পেতে অনেক ধরনের কাগজ ও আনুষঙ্গিক খরচ ছাড়া শুধু জমা দেতে হয় প্রায় ১ লক্ষ ৫০  হাজার থেকে ২ লক্ষ টাকা। যার আইসিটি’তে শুধুমাত্র মেধা এবং প্রজেক্ট আছে তাদের এই ফান্ডটি পাওয়া অসম্ভব। আইটি এক্সপার্টদের জন্য আরো সহজ শর্তে এই ফান্ডটি দেওয়ার পাশাপাশি ব্যাংকগুলোকেও একইভাবে নির্দেশ দিলে চট্টগ্রাম তথা বাংলাদেশে আইসিটির বিপ্লব ঘটানো সম্ভব। সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও  প্রধান নির্বাহী চৌধুরী জসীমুল হকের পরিচালনায় এতে বিশেষ অতিথি চট্টগ্রাম ক্রীড়া সংস্থার সাবেক সহ-সভাপতি, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব দিদারুল আলম চৌধুরী (এমজেএফ) বলেন, “পিআইসিটির মাধ্যমে “প্রজন্ম চট্টগ্রাম’র বিভিন্ন কর্মকাণ্ড সমগ্র চট্টগ্রামে ছড়িয়ে দেওয়ার এবং মুক্তিযোদ্ধার চেতনায় কাজ করার জন্য সদস্যদের আহবান জানান। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট মানবাধিকার সংগঠক লায়ন শওকত আলী নূর, প্রাইম ক্যাডেট স্কুল এন্ড কলেজের চেয়ারম্যান মোঃ আবু ইউনুচ, বিশিষ্ট সমাজ সেবক মোহাম্মদ জানে আলম, সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মোঃ জিয়াউর রহমান, স্থায়ী সদস্য কবি চৌধুরী মিফতা, শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন পিআইসিটির দল প্রধান ও স্থায়ী সদস্য প্রকৌশলী এস এম ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী, পিআইসিটি সমন্বয়ক সৈয়দ সাদমান মোহাম্মদ, পিআইসিটি বিভিন্ন সেবা ও সার্ভিসের উপর একটি তথ্যচিত্র উপস্থাপন করেন পিআইসিটির মূখপত্র সৈয়দ হেদায়েত উল্লাহ সাউদ, মহান বিজয়ের একটি কবিতা আবৃত্তি করেন প্রজন্ম  আবৃত্তি মঞ্চের দল প্রধান মেজবাহ উদ্দিন চৌধুরী ও নির্বাহী সদস্য আহসান উল্লাহ সানি। পবিত্র কোরআন পাঠ করেন চবি শাখার অর্থ ও হিসাব সম্পাদক এম মঈন উদ্দিন মানিক। অনুষ্ঠান শেষে আগামী জানুয়ারি-ফেব্র“য়ারি দু’মাস ব্যাপী পিআইসিটি কম্পিউটার প্রশিক্ষণ ও ক্যাম্পইন বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আয়োজন করার লক্ষ্যে বিশিষ্ট প্রযুক্তিবিদ প্রফেসর ড. মোঃ নুরুল মোস্তফাকে প্রধান উপদেষ্টা করে একটি কমিটি গঠন করা হচ্ছে। এই সময় ড. নুরুল মোস্তফাকে পিআইসিটি ক্যাম্পইন দলের সদস্য শুভ বড়–য়া, মোঃ আবুল বশর, মোঃ ওমর ফারুক, শাহেন শাহ আলী বাপ্পা ফুল দিয়ে বরণ করে নেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*