চট্টগ্রামে পৌনে ৬ কোটি টাকার বিল ও জরিমানা আদায়

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৬ নভেম্বর: চট্টগ্রামে জানুয়ারি-অক্টোবর, ১০ মাসে পৌনে ছয় কোটি টাকার বকেয়া বিল ও জরিমানা আদায় করেছে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিউবো)। চট্টগ্রাম, তিন পার্বত্য জেলা-রাঙামাটি, বান্দরবান ও খাগড়াছড়ি এবং কক্সবাজার নিয়ে গঠিত বিতরণ দক্ষিণাঞ্চল ১৩১টি ভ্রাম্যমাণ আদালত ও ১ হাজার ১০৯টি সংযোগ বিচ্ছিন্ন ও মামলার মাধ্যমে এ সাফল্যের দেখা পায়।BUB
বিউবো’র বিতরণ দক্ষিণাঞ্চল জোনে বিদ্যুতের গ্রাহক আছে ৭ লাখ ৮০ হাজার। চট্টগ্রামের সব বিদ্যুৎকেন্দ্রে দৈনিক উৎপাদন হয় ৭০০ মেগাওয়াট। মোট জাতীয় উৎপাদনের ১২ শতাংশ সরবরাহ দেওয়া হয় দেশের বিউবো’র বিতরণ দক্ষিণাঞ্চলকে। সমস্যা হচ্ছে, অসচেতন আবাসিক গ্রাহকদের বকেয়া বিল আদায় ও অবৈধ-ঝুঁকিপূর্ণ সংযোগ নিয়ে বিদ্যুৎ ব্যবহার দুটোই পাল্লা দিয়ে বাড়ছে। রয়েছে সিস্টেম লসের বোঝাও।
ফলে সিস্টেম লস যেমন বাড়ছে তেমনি রাজস্ব আদায়ও। এ অবস্থায় বিশেষ অভিযান শুরু করেছে বিউবো। বিউবো আদালত চট্টগ্রামের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের সমন্বিত কার্যক্রমে গতিসঞ্চার হয়েছে অভিযানে।
বিউবো সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছরের (২০১৫) জানুয়ারি থেকে অক্টোবর পর্যন্ত আবাসিক গ্রাহক পর্যায়ে বকেয়া আদায় হয়েছে ৪ কোটি ৪৩ লাখ ৫৬ হাজার ৭৩৬ টাকা। জরিমানা আদায় করা হয়েছে ১ কোটি ২৬ লাখ ৩৯ হাজার ১৭৫ টাকা। এর মধ্যে জুন মাসে সর্বোচ্চ ১ কোটি ২০ লাখ ৬০ হাজার ৯০৬ টাকা বকেয়া বিল এবং মে মাসে সর্বোচ্চ জরিমানা ৪৫ লাখ ৮৩ হাজার ৩১৮ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। তবে ফেব্রুয়ারিতে অভিযান বন্ধ ছিল।
জানুয়ারিতে ১৬ লাখ ৫ হাজার, মার্চে ২৩ লাখ ৯ হাজার, এপ্রিলে ৩৪ লাখ ৪৩ হাজার, মে মাসে ৭৯ লাখ ৭৪ হাজার, জুলাইতে ২৭ লাখ ৬৪ হাজার, আগস্টে ৪২ লাখ ৯৮ হাজার, সেপ্টেম্বরে ৬০ লাখ ২৩ হাজার ও অক্টোবরে ৩৮ লাখ ৭৬ হাজার টাকার বেশি বকেয়া বিল আদায় করেছে বিউবো।
অন্যদিকে জানুয়ারিতে ১৪ লাখ ২ হাজার, মার্চে ১২ লাখ ৬০ হাজার, এপ্রিলে ১২ লাখ ৪ হাজার, জুনে ১১ লাখ ৯৯ হাজার, জুলাইতে ৮ লাখ ২২ হাজার, আগস্টে ১০ লাখ ৩ হাজার, সেপ্টেম্বরে ৫ লাখ ৯৮ হাজার ও অক্টোবরে ৫ লাখ ৬৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। সবচেয়ে বেশি ৩৪টি ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালিত হয়েছে মে মাসে, ৩৪টি। এরপর আগস্টে ৩৩টি। অন্যদিকে সবচেয়ে বেশি সংযোগ বিচ্ছিন্ন ও মামলা হয়েছে মে মাসে ৩৭৫টি।
চট্টগ্রাম থেকে প্রতি মাসে পিডিবি রাজস্ব আদায় করে প্রায় পৌনে দু’শ কোটি টাকা। সম্প্রতি শিল্প, বাণিজ্যিক ও আবাসিক পর্যায়ে বকেয়া বিল সাড়ে তিনশ’ কোটি টাকা ছাড়িয়ে গেছে। এর মধ্যে সরকারি প্রতিষ্ঠানও রয়েছে।
বিউবো’র জ্যেষ্ঠ সহকারী পরিচালক (জনসংযোগ) মো. মনিরুজ্জামান জানান, নিয়ম রয়েছে এক মাসের বকেয়া বিল সর্বোচ্চ তিন মাসের মধ্যে পরিশোধের। এরপর নোটিশ ইস্যু করা হয়। তারপর অভিযান চালিয়ে সংযোগ বিচ্ছিন্ন, জেল-জরিমানা ইত্যাদি।
তিনি বলেন, ‘গ্রাহকসেবায় বিউবো সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এক্ষেত্রে গ্রাহকরা যাতে অধিকতর সচেতন হয়, মূল্যবান জাতীয় সম্পদ বিদ্যুৎ চুরি বন্ধ হয় সে লক্ষ্যেই ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান। আগামী দিনে এ অভিযান আরও জোরদার করা হবে।’

Leave a Reply

%d bloggers like this: