চট্টগ্রামে গণধোলাইয়ের শিকার ইউপি সদস্য

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৫ জুলাই: চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলায় শপথ নিতে গিয়ে ‘হত্যা মামলার আসামি’ এক ইউপি সদস্য গণধোলাই ও জুতা পেটার শিকার হয়েছেন। সোমবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলা পরিষদের প্রবেশের মুখে এ ঘটনা ঘটে। গণধোলাইয়ের শিকার কিশোর ভঞ্জ পোপাদিয়া ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের নির্বাচিত ইউপি সদস্য।ctg up
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সোমবার সকাল ১১টার দিকে উপজেলা পরিষদের সামনের সড়কে কৃতি ফুটবলার আজাদ হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন চলছিল। এসময় আজাদ হত্যা মামলা অন্যতম আসামি কিশোর ভঞ্জ শপথ গ্রহণ শেষে বের হলে মানববন্ধনে অংশ নেয়া আজাদের পরিবার ও লোকজনের তোপের মুখে পড়ে। এ সময় উপস্থিত জনতা তাকে গণধোলাই ও জুতা পেটা করেন।
পরে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কক্ষে নিয়ে যান। বেলা ১টার দিকে পুলিশি নিরাপত্তায় বের করতে চাইলে আবারো পুলিশের সাথে বাক বিতন্ডায় জড়িয়ে পরে জনতা। পরে থানার এক প্লাটুন পুলিশ ব্যাপক নিরাপত্তা দিয়ে আটকে পড়া ইউপি সদস্যকে বাড়ি পৌঁছে দেয়।
উল্লেখ্য, ২০১১ সালে ৩০ অক্টোবর রাতে উপজেলার পোপাদিয়া ইউনিয়নের তালতলে একটি শ্যামা পুজার অনুষ্ঠানে গিয়ে কৃতি ফুটবলার আজাদ নৃশংসভাবে খুন হন।
সোমবার সকাল ১১টার দিকে উপজেলার শাকপুরা, সারোয়াতলী, আমুচিয়া, শ্রীপুর-খরণদ্বীপ ও পোপাদিয়া ইউনিয়নের সংরক্ষিত ১৫জন ও সাধারণ ওয়ার্ডের ৪৫ সদস্য শপথ নেন। শপথ বাক্য পাঠ করান উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাজী মাহবুবুল আলম। অনুষ্ঠানে অব্যবস্থাপনায় সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ বসতেই পারেননি। এ জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার দু:খ প্রকাশ করেন। এ ব্যাপারে বোয়ালখালী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সালাহ উদ্দিন চৌধুরী বলেন, শপথ অনুষ্ঠানে পুলিশ চাওয়া হয়নি। তারপরেও পুলিশি তৎপরতায় কোনো ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটতে দেয়া হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*