চট্টগ্রামে এক দৌহিত্র সম্পত্তি বিষয়ে দ্রুত নিষ্পত্তির যুক্তি দেখিয়েছেন পরিতোষ কুমার শর্ম্মা গং

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৭, শনিবার: চট্টগ্রামের রাউজানস্থ নোয়াপাড়া মৌজাসহ পটিয়াপাড়া মৌজাভূক্ত এক দৌহিত্র সম্পত্তির অধিকারকে কেন্দ্র করে চলমান বিতর্কের দ্রুত অবসান হওয়ার পক্ষে বিভিন্ন যৌক্তিকতা উল্লেখ রেখে উক্ত দৌহিত্র সম্পত্তির মালিক পরিতোষ কুমার শর্ম্মা গং সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে লিখিত আবেদন করেন। জানা গেছে, উক্ত নোয়াপাড়ার বাসিন্দা মৃত মধুসূদন আচার্য্যরে পুত্র জগন্নাথ আচার্য্য উক্ত দৌহিত্র সম্পত্তিকে তার নিজের মৌরশী সম্পত্তি হিসেবে প্রমাণ করতে ব্যর্থ হওয়ার কারণে রাউজান সহকারী কমিশনার (ভূমি) উক্ত দৌহিত্র সম্পত্তির নামজারী বিএস খতিয়ানের বৈধতা বহাল থাকার জন্য এক আদেশ দেন। এ আদেশের বিরুদ্ধে উক্ত জগন্নাথ আচার্য্য ১৯০৮ ইং সনের তামাদি আইনের “ক্ষেত্রবিশেষে বিলম্ব মওকুফ বা সময় বৃদ্ধিকরণ” নামক এমন ০৫ নং ধারাকে তার নিজের যুক্তি হিসেবে উল্লেখ রেখে চট্টগ্রাম অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আদালতে এক ৫৫/২০১৬-২৪৮ নং নামজারী আপিল মামলা ৩০/০৩/২০১৬ ইং তারিখে দায়ের করেন বলেও জানা গেছে। জগন্নাথ আচার্য্যরে এ রকম আপিল আপত্তি দায়েরের যৌক্তিকতার সাথে উক্ত ০৫ নং ধারা নামক যুক্তিটি কোনো অবস্থাতেই সুসংগত না হওয়ার যৌক্তিকতা উল্লেখ রেখে ও জগন্নাথ আচার্য্য আপত্তি দায়েরের মাধ্যমে পরিতোষ কুমার শর্ম্মা গংকে বিলম্বসহ হয়রানীর শিকারে বন্দি রাখার ধারণা করে লিখিত জবাব দাখিল করা হয় বলে সূত্র জানায়। এদিকে জগন্নাথ আচার্য্যরে কাছ থেকে উক্ত কথিত মৌরশী সম্পত্তি ক্রয় না করার অনুরোধ জানিয়ে ২৫/০৫/২০১৬ ইং তারিখের www.dainikshangu.com  পত্রিকার ৩ নং পৃষ্ঠায় এক সংবাদবিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয় বলেও সূত্র জানায়। এ প্রকাশিত সংবাদবিজ্ঞপ্তির কপি সংযুক্ত রেখে এবং পরিতোষ কুমার শর্ম্মা গং উক্ত মামলা খারিজযোগ্য ও আপিল অযোগ্য হওয়ার আদেশ জারীর বিভিন্ন যৌক্তিকতা দেখিয়ে লিখিত ৪ পৃষ্ঠার এক আবেদন প্রধানমন্ত্রীর এটু আই প্রকল্পের নিয়ন্ত্রণাধীন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের ডিজিটাল তথ্যসেবা কেন্দ্রের ১০০০০০৩১৬১১২৩০২৫ (www.chittagong.gov.bd) নং ওয়েবসাইট বরাবর ২৩/১১/২০১৬ ইং তারিখে জমা দেয়া হয় বলে সূত্রে উল্লেখ আছে। এ ওয়েবসাইট নম্বরযুক্ত আবেদনকপি ০২/০১/২০১৭ ইং তারিখে চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার, চট্টগ্রাম অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আদালত, চট্টগ্রাম জেলা পাবলিক প্রসিকিউটর, পরিতোষ কুমার শর্ম্মা গং নিযুক্তিয় উকিল, রাউজান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও রাউজান থানা ওসি বরাবর যথাক্রমে ৫৫১ নং, ৫৫২ নং, ৫৫৩ নং, ৫৫৪ নং, ৫৫৫ নং ও ৫৫৬ নং রেজিস্ট্রি ডাকযোগে পাঠানো হয় বলেও সূত্রে উল্লেখ আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*