চট্টগ্রামে ঈদ যাত্রায় দূর্ভোগ: নাগরিক ভাবনা র্শীষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১৭ জুন ২০১৭, শনিবার: ঈদ যাত্রায় অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের নৈরাজ্য ও যাত্রী হয়রানী বন্ধে প্রদক্ষেপ গ্রহনের দাবী জানিয়েছে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি।
চট্টগ্রাম থেকে দক্ষিণ চট্টগ্রামের যাত্রী, ভোলা, বরিশালসহ উত্তরবঙ্গের যাত্রীরা প্রতিবছর ঈদে দ্বিগুন-তিনগুন অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের পাশাপাশি হয়রানীর শিকার হয় বলে অভিযোগ করেছে সংগঠনের নেতারা। গত ১৬ জুন বিকেলে নগরীর একটি রেষ্টুরেন্টে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি চট্টগ্রাম আঞ্চলিক কমিটি আয়োজিত “ঈদ যাত্রায় দূর্ভোগঃ নাগরিক ভাবনা” শীর্ষক আলোচনা সভায় বক্তারা এই মন্তব্য করেন।
সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও চট্টগ্রাম আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি মো, মোজাম্মেল হক চৌধূরীর সভাপতিত্বে অনুষ্টিত এ সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক উত্তর বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার মো. সুজায়েত ইসলাম, আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন  সিএমপির ট্রাফিক বন্দর বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার সৈয়দ আবু সায়েম, চট্টগ্রাম জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রেজাউল মাসুদ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড.শেখ আফতাব উদ্দীন, এফবিসিসিআই এর সদস্য মাহবুব রানা, বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের বিশেষ প্রতিনিধি আমিনুল হক বাবু, ডাঃ সুরুজ্জামান, শেখ ইমরান হোসেন, চট্টগ্রাম মহানগর কমিটির নেতা জীকরু হাবিবিল ওয়াহেদ, আকতার মিয়া, জিয়াউল হক বাবু, মানবাধিকার কর্মি জসিম উদ্দীন, জাতীয় গামের্ন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি নাজমা বেগম, সম্পাদক রাজীয়া খাতুন পিংকি, মাওলানা জিয়াউর রহমান। সংগঠক নোমান উল্লাহ বাহারের সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের চট্টগ্রাম আঞ্চলিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক সামসুদ্দীন চৌধুরী।
এবারের ঈদে চট্টগ্রাম থেকে ২২ লাখ যাত্রী দেশের বিভিন্ন গন্তব্যে যাবে দাবী করে সংগঠনের নেতারা আরো বলেন প্রশাসনের কঠোর নজরদারী এবং দৃষ্টান্ত মূলক ব্যবস্থা গ্রহনের মাধ্যমে ঈদ যাত্রায় অতিরিক্ত ভাড়া আদায় ও যাত্রী হয়রানী বন্ধ করা সম্ভব।
উপ-পুলিশ কমিশনার সুজায়েত ইসলাম বলেন, ঈদ যাত্রায় অতিরিক্ত ভাড়া আদায় ও যাত্রী হয়রানী বন্ধে সিএমপির পুলিশ সদস্যরা মাঠে থাকবে, যে কোন অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান।
যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী বলেন, বিগত ঈদে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় ও যাত্রী হয়রানী বন্ধে সংগঠনের ৬টি টিম নগরীর জুড়ে কাজ করেছে। এবারের ঈদেও তারা মাঠে রয়েছে। বিগত সময়ে পুলিশের যেরকম সহযোগিতা ছিল এবারের ঈদে একই সহযোগিতা পেলে যাত্রী হয়রানী ও অতিরিক্ত ভাড়া আদায় বন্ধে কার্যকর প্রদক্ষেপ গ্রহনে সক্ষম হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*