গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজে পুরুষ প্রবেশ নিষিদ্ধ!

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৪ জুলাই: বিয়ে বাড়ির সাজে সাজানো হয় কলেজ মিলনায়তন। জমকালো মঞ্চ সাজিয়ে লেখা হয়েছে ‘সাইফ-পলির হলুদ সন্ধ্যা’। কনে মাসুমা আক্তার পলি ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি। তিনি আবার রাজধানীর গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ ছাত্রলীগেরও সাধারণ সম্পাদক। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ মিলনায়তনে তার গায়ে হলুদের অনুষ্ঠান হয়।s
গার্হস্থ্য অর্থনীতিতে কলেজে বহিরাগত পুরুষ প্রবেশ নিষিদ্ধ। সন্ধ্যার পর আবাসিক ছাত্রী ব্যতিত আর কারোরই প্রবেশের অনুমতি নেই। কিন্তু এসব নিয়ম ভেঙে পলির বরসহ গায়ে হলুদে আসা নারী-পুরুষ অতিথিরা অনেক রাত পর্যন্ত কলেজ মিলনায়তনে অবস্থান করেন। তাতে বাধা দেননি কলেজ কর্তৃপক্ষ। গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানের ছবিও ফেসবুকে আপলোড করা হয়। ছাত্রলীগ নেত্রীর গায়ে হলুদ কলেজে!
কলেজে গায়ে হলুদের মতো ব্যক্তিগত অনুষ্ঠান করা যায় কী না-তা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে চলছে আলোচনা-সমালোচনা। তবে এ বিষয়ে মুখ খোলেনি কলেজ কর্তৃপক্ষ।
ছাত্রলীগের সভাপতি মো. সাইফুর রহমান সোহাগসহ সংগঠনের উল্লেখযোগ্য নেতারা পলিকেই সমর্থন করেছেন। ছাত্রলীগ সভাপতি বলেন, কলেজ মিলনায়তন ভাড়া নিয়ে নিয়মিত এ ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। পলি ভাড়া নিয়ে থাকলে তাতে দোষের কিছু নেই।
তবে ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আরেফিন নুসারত ফেসবুকে এ ঘটনার নিন্দা করে লিখেছেন, ক্ষমতার অপব্যবহার করে ছাত্রলীগের সুনাম ক্ষুন্ন করায় পলির সাংগঠনিক বিচার হওয়া উচিত। কলেজ মিলনায়তন ব্যক্তিগত কাজে ব্যবহার করতে দেওয়ায় কলেজ কর্তৃপক্ষের জবাবদিহি করা উচিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*