গণমানুষের কল্যানে কাজ করে যেতে চাই আজীবন: সংবর্ধনা সভায় কেবিএম শাহজাহান

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৪ মে ২০১৭, বুধবার: চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ এর যুগ্ম আহ্বায়ক কে.বি.এম শাহজাহান চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের  বোর্ড সদস্য মনোনীত হওয়ায় সংবর্ধণা জানিয়েছে পতেঙ্গা স্টিল মিল আবাসিক এলাকাবাসী, শুভাকাঙ্খী ও বন্ধুমহল। নগরীর তাসফিয়া গার্ডেনে গতকাল সন্ধ্যায় চক্ষু রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. মোজাম্মেল হক শারিফীর সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রাচ্যভাষা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. জ্বিনবোধি ভিক্ষু। সংবর্ধনার জবাবে কে.বি.এম শাহজাহান বলেন, চট্টগ্রাম এর পরিকল্পিত উন্নয়নে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ প্রধান নিয়ন্ত্রক হিসেবে কাজ করে। গণপূর্ত মন্ত্রনালয়ের অধীনে পরিচালিত এ সংস্থার বোর্ড সদস্য  হওয়া তখনি গৌরবের যখন এ গুরুদায়িত্ব পালনে সকল চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে উন্নয়নে ভূমিকা রাখা সম্ভব হবে। গণমানুষের উন্নয়নে কাজ করার তীব্র আকাঙ্খা নিয়েই ছাত্র জীবন থেকেই রাজনীতিতে সক্রিয় রয়েছি। আজ সরকারী উন্নয়ন কর্মকান্ডে সরাসরি সম্পৃক্ত হওয়ার সুযোগ করে দেয়ায় আমার প্রানপ্রিয় নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা, গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন মহোদয় ও প্রিয় নেতা সিডিএ চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম মহোদয়কে কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। আপনাদের সকলের সহযোগিতা ও শুভ কামনা সাথে নিয়ে চট্টগ্রাম এর উন্নয়নে সকল চ্যালেঞ্জ  মোকাবেলায় সিডিএ চেয়ারম্যান এর হাতকে শক্তিশালী করতে আন্তরিকতার সাথে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করছি।
সংবর্ধনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চিটাগং ষ্টীল মিলস ওয়ার্কাস ইউনিয়ন (সাবেক সিবিএ-শ্রমিক নেতা) মো. আবদুর রহিম, মো. আতিক উল্লাহ, জাফর আহমদ, তরুন আওয়ামীলীগ নেতা ব্যারিষ্টার সওগাতুল আনোয়ার খান।
সভায় উপস্থিত ছিলেন শিল্পপ্রতি জামশেদুল আলম, মো. ইকবাল, শামসুল হুদা দিপু, আকতারুজ্জামান রিপন, মঈন উদ্দিন আহমদ সিদ্দিকী টিটু, শামসুল আলম রিপন, আবিদা সুলতানা, বোরহান উদ্দিন গিফারী ও মোয়াজ্জেম হোসেন সহ সাবেক কলোনীবাসীরা।
সংবর্ধিত অতিথি কে বি এম শাহজাহানকে ফুল এবং সম্মাননা ক্রেষ্ট প্রদান করা হয়। সংবর্ধনা সভার প্রধান অতিথি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রাচ্যভাষা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড.জ্বিনবোধি ভিক্ষু বলেন, সততা ও দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে হবে। যাতে অন্যরা অনুসরন করতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*