গণতন্ত্রের নামে সরকার ‘মার্শাল ডেমোক্রেসি’ প্রবর্তন করেছে’

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : গণতন্ত্রের নামে বর্তমান সরকার ‘মার্শাল ডেমোক্রেসি’ প্রবর্তন করেছে বলে জানিয়েছেন বিএনপি’র যুগ্ম মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদ। salaশনিবার গণমাধ্যমে পাঠানো তার স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ কথা জানান তিনি। সালাহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, সমগ্র দেশবাসী অত্যন্ত পরিতাপের সঙ্গে লক্ষ্য করছে যে, ক্ষমতালিপ্সু অবৈধ সরকারের প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ নেত্রী শেখ হাসিনা গদি রক্ষার জন্য এবং অবৈধ ক্ষমতা দীর্ঘায়িত করার মানসে গণতন্ত্রের কবর রচনা করেছেন। তিনি আরো বলেন, সরকার দেশে গণতন্ত্রের নামে ‘মার্শাল ডেমোক্রেসি’ প্রবর্তন করেছে। বর্তমানে দেশে একদলীয় সরকার ব্যবস্থা কায়েমের পর একদলীয় রাষ্ট্র ব্যবস্থা প্রবর্তন করার মানসে এক ব্যক্তির ইচ্ছাকেই আইনের উৎসে পরিণত করা হচ্ছে। জনগণের গণতান্ত্রিক ও সাংবিধানিক সকল অধিকার ছিনিয়ে নেয়া হয়েছে। সভা-সমাবেশ ও কথা বলার অধিকার বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। তিনি বলেন, গতকাল জনসভায় দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার কার্যালয়কে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করার ঘোষণা দিয়ে ইন্টারনেট, ব্রডব্যান্ড ও ক্যাবল লাইনসহ সকল বৈদ্যুতিক যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। সরকারী দল ঘোষণা দিয়েছে পানি, গ্যাস ও খাবার সরবরাহ বন্ধ করে দেবে। সভ্য দুনিয়ার ইতিহাসে এ রকম ঘৃণিত ও জঘন্য নজির কোথাও পাওয়া যাবে না উল্লেখ করে তিনি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। এসময় তিনি অবিলম্বে বিছিন্ন বিদ্যুৎসহ সকল যোগাযোগ মাধ্যম পুন:স্থাপনের ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট সকল দফতরকে আহবান জানান। অন্যথায় উদ্ভূত যে কোনো পরিস্থিতির জন্য সরকার দায়ী থাকবে উল্লেখ করে সালাহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, এর পরিণতি কখনোই শুভ হবে না। তিনি বলেন, আমরা দেশের এবং বিশ্বের সকল মানবাধিকার সংস্থা, সংগঠন ও মানবাধিকার কর্মীদের কাছে আহবান জানাই-আপনারা আসুন, দেখুন বাংলাদেশে গণতন্ত্রের নামে কত ঘৃণ্য জংলীতন্ত্র কার্যকর হয়েছে ভোটারবিহীন এই সরকারের বদৌলতে। জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশনের কাছে আবেদন জানাই-আপনারা বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি অনুধাবন করে যথাযথ কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করুন। এ সময় দলের যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর গ্রেফতারের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে তার নি:শর্ত মুক্তির দাবি জানান সালাহ উদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, চলমান আন্দোলনে সরকারি পেটোয়া বাহিনী কর্তৃক নিহত শহীদদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে তাদের শোকাহত পরিবার পরিজনদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি। তিনি আরো বলেন, গণতন্ত্রকামী সংগ্রামী জনগণের আন্দোলনের দাবানল দাউদাউ করে জ্বলে উঠবে আরো তীব্র গতিতে। দেশের সকল মুক্তিকামী মানুষের বাড়িঘরকে এখন আন্দোলনের সুতিকাগারে পরিণত করার আহবান জানাচ্ছি। প্রত্যেক ঘরে ঘরে গণতন্ত্রের মুক্তি আন্দোলন গড়ে তুলুন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: