খাচ্ছি প্রাণের লাচ্ছি, মৃত্যুর মুখে ঝুকছি

অজিত কুমার দাশ হিমু, কক্সবাজার : খাচ্ছি প্রাণের লাচ্ছি, মৃত্যুর Coxsbazar Pic-, 8-4-15মুখে ঝুকছি। এমনটাই বলেছেন কক্সবাজার শহরের অসংখ্য সচেতন মানুষ। অবিশ্বাস্য হলেও সত্য যে অতি মজাদার হিসেবে পরিচিত প্রাণ কোম্পানির প্রাণ লাচ্ছি’র ১৬ টাকা মূল্যমানের জুসটিতে ভেজাল ধরা পড়েছে। একের পর এক ঘটনায় এ জুসটি এখন সচেতন মানুষদের মনে বিষ হিসেবে দেখা দিয়েছে। জানা গেছে, প্রাণের ওই জুস খেয়ে বিগত এক বছরে শিশুসহ ৫ জন গুরুতর অসুস্থ হয়েছে। আর সংগঠিত হয়েছে ভেজাল জুস ধরার প্রায় ১০টি ঘটনা। সম্প্রতি শহরের টেকপাড়া জনতা সড়কের বোরহান উদ্দিনের শিশু পুত্র আতিফ (২) এ জুস খেয়ে মারাত্মক পেটের সমস্যায় পড়ে গুরুতর অসুস্থ হয়েছে। পড়ে তাকে উন্নত চিকিৎসা করে সুস্থ করা হয়েছে। তাছাড়া মহিলা কলেজের সামনে ও কলাতলি মোড়ে আরো বড় ধরনের ঘটনা ঘটেছে। এসব ঘটনায় এসআররা জরিমানা ও মুচলেকা দিয়ে ছাড়া পেলেও প্রাণ গ্্রুপের কর্তা-ব্যক্তি ও ডিলারের টনক নড়েনি। এদিকে গত ৭ এপ্রিল সকালেও শহরের টেকপাড়া জনতা সড়কে খুরুস্কুল হিন্দুপাড়ার রাজেন্দ্র দে’র পুত্র সৌরভ কান্তি দে’র দেয়া প্রাণ লাচ্ছি জুসে ভেজাল ধরা পড়েছে। পরে উত্তেজিত জনতা তাকে আটকে রেখে পুলিশে খবর দেয়। প্রাণ কোম্পানির এস আর সৌরভ কান্তি দে’কে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ এসে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।
ওই এস আর জানান, ডিলারটি অফিস শহরের বায়তুশ শরফ এর পাশে। এটি শহরের ঘোনার পাড়ার রুবেলই পরিচালনা করছেন। তার অধীনেই প্রায় ২০ জন এস আর এসব ভেজাল জুস বিক্রি করে আসছেন। অভিযোগ পাওয়া গেছে, প্রতারক রুবেল প্রাণ কোম্পানির ডিলার নিয়ে মানুষের সাথে প্রাতারণা করছেন। যার কারণে শিশু স্বাস্থের মারাত্মক ক্ষতি সাধিত হচ্ছে। ঘোনার পাড়ার অনেকে জানিয়েছেন, রুবেল প্রাণ কোম্পানির ওইসব জুস নিয়ে বোতল ও লেভেল ঠিক রেখে ভেতরে ভেজাল পানি ঠুকিয়ে প্রাণ লাচ্ছি জুস বলে বাজারজাত করে প্রতি মাসে লাখ-লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন। ৭ এপ্রিল সকালেও একটি দোকানে ভেজাল জুস ধরা পড়লে পরবর্তীতে তার এস আরকে আটক করা হলেও তিনি মোবাইল বন্ধ করে সটকে পড়েন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তিনি রাতে মানুষ পাঠিয়ে অভিযান পরিচালনাকারি এস আই ফিরোজ ও তার অনুসারি কয়েকজন সাংবাদিককে অর্ধ লক্ষ টাকায় ম্যানেজ করে ঘটনাটি ধামাচাপা দিয়েছেন এবং আটককৃত এস আরকে রাতেই ছাড়িয়ে এনেছেন। যার কারণে স্থানীয় কোন পত্রিকায় সংবাদও প্রকাশ হয়নি। পত্রিকা ম্যানেজের নামেও এস আই ফিরোজের আস্থাভাজন সাংবাদিক বিপুল টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। প্রাণ লাচ্ছি জুসের কক্সবাজারস্থ ডিলার রুবেল জানান, ঘটনাটি সত্য। তবে এ ঘটনার দায়দায়িত্ব কোম্পানির। এ ব্যাপারে আমার করার কিছুই নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*