কোন খাবারে হয় মন ভালো?

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৯ মে ২০১৭, মঙ্গলবার: মন খারাপ হলেই চকলেট খাচ্ছেন? আপনি একা নন, অনেকেই এমনটা করে। খাবারের সঙ্গে মন ভালো হওয়ার আসলেই কোনো সম্পকর্ আছে কি?
‘দুশ্চিন্তা এবং অন্যান্য অনুভূতি মাঝে মাঝে আমাদের বিস্কুটের বয়ামের দিকে হাত বাড়াতে বাধ্য করে।’ – বললেন অস্ট্রেলিয়ার ডিকিন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ফেলিস জাকা। হতাশাগ্রস্ত ব্যক্তিদের খাদ্যাভ্যাস কিভাবে স্বাস্থ্যকর করে তোলা যায়, তা নিয়ে গবেষণা করছেন এই অধ্যাপক।
আপনি হয়তো ভাবছেন মিষ্টি কিছু খেলে মনটা ভালো হবে। কিন্তু বাস্তবে হতে পারে তার উল্টো, বিশেষ করে যদি প্রায়ই খাওয়া হয়। কিন্তু প্রশ্ন হলো, কোনো বিশেষ ধরনের খাবার কি আসলেই মানসিক অবস্থার উপর প্রভাব ফেলে? কিংবা হতাশা কাটাতে সাহায্য করে?
হতাশার বিরুদ্ধে লড়বে খাবার?
কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, যেসব মানুষ ভূমধ্যসাগরীয় এলাকার বাসিন্দাদের মতো খাবার খান বা মেডিটেরেনিয়ান ডায়েট (শাক-সবজি, ফলমূল, বাদাম, হোলগ্রেইন রুটি, অলিভ অয়েল, সামুদ্রিক মাছ) অনুসরণ করেন তাদের হতাশা কম হয়। অপর দিকে এসব খাবারের তুলনায় যারা প্রক্রিয়াজাত এবং প্যাকেটজাত খাবার বেশি খান, তাদের মধ্যে বেশি হতাশা দেখা যায়।
তবে এ বিষয়ে আরো গবেষণা প্রয়োজন। ঠিক কী কারণে এবং কীভাবে মেডিটেরেনিয়ান ডায়েট মানসিক অবস্থার ওপর প্রভাব ফেলে তা এখনও নিশ্চিত নয়।
কী ধরনের খাবার খাওয়া উচিৎ নয়
চর্বিযুক্ত, প্রক্রিয়াজাত এবং মিষ্টি খাবার খাওয়া উচিৎ কালেভদ্রে, খুবই কম পরিমাণে।স্যাচুরেটেড ফ্যাট এবং অতিরিক্ত চিনিযুক্ত খাবার শরীরে খারাপ প্রভাব ফেলে। তাই এ ধরনের খাবার যতটা সম্ভব এড়িয়ে যাওয়া উচিৎ।
তাহলে ভালো খাবার কোনগুলো?
গবেষণা বলছে, মাছের তেলের মতো বেশ কিছু খাবার হতে পারে মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। আবার অন্য কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, নির্দিষ্ট কোনো খাবার না খেয়ে একসঙ্গে কয়েক ধরনের পুষ্টিকর খাবার খেলে তা মস্তিষ্ককে হতাশার বিরুদ্ধে লড়তে সাহায্য করে।
কোনো নির্দিষ্ট খাবারের পুষ্টিগুণ কীভাবে মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতিতে সাহায্য করে, তা বুঝে ওঠা কঠিন। কারণ কোন খাবার কীভাবে আমাদের শরীরে কাজ করে তা বিশ্লেষণ করা সহজ কাজ নয়।
তাই এটা মাথায় রাখা উচিৎ যে যখন আপনি একই সঙ্গে সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে এবং মানসিকভাবে ভালো থাকতে চাইছেন, তখন নির্দিষ্ট কোনো খাবারের উপর নির্ভর করা উচিৎ নয়। অনেক ধরনের স্বাস্থ্যকর খাবারের ব্যালেন্সড ডায়েট মেনে চললে আপনার শরীর এবং মন দুটোই ভালো থাকবে।
অধ্যাপক জাকার মতানুসারে প্রতিদিন খাদ্যতালিকায় রাখা উচিৎ এই খাবারগুলো:
# অনেক ধরনের ফলমূল এবং শাকসবজি, বিশেষ করে সবুজ শাক।
# লাল আটার রুটি এবং লাল চাল।
# টিনজাত এবং চর্বিযুক্ত মাংসের বদলে টাটকা মাংস।
# ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ মাছ।
# ডাল এবং বাদাম জাতীয় শস্য, দেহের প্রয়োজনীয় আঁশ এবং ভিটামিনের জন্য।
ফুডের সঙ্গে আমাদের মুডের সরাসরি সম্পর্ক আদৌ আছে কী না, তা এখনও নিশ্চিত নন বিজ্ঞানীরা। তবে স্বাস্থ্যকর খাবার খেলে আপনি শারীরিকভাবে সুস্থ থাকবেন, এতে কোনো সন্দেহ নেই। আর সুস্থ থাকলে মুখে হাসি ফুটবেই!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*