কুয়েটে র‌্যাগিং বিরোধী শপথ

খুলনা থেকে ফিরে এমএম রাজা মিয়া রাজু: খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিশ্ববিদ্যালয়ে (কুয়েট) র‌্যাগিং বিরোধী শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত মঙ্গলবার বিকালে KUET_Anti Ragging-2বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তিযুদ্ধের ভাস্কর্য দুর্বার বাংলা’র পাদদেশে ২০১৫ ব্যাচের শিক্ষার্থীদের জন্য শপথ গ্রহণ আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে শিক্ষার্থীদের শপথ বাক্য পাঠ করান বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পরিচালক (ছাত্র কল্যাণ) প্রফেসর ড. সোবহান মিয়া, লালন শাহ হলের প্রভোষ্ট ড. পল্লব কুমার চৌধুরী ’১৫ ব্যাচের শিক্ষার্থী মুন্না ও সাইফুদ্দিন নিশাত। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সহকারী পরিচালক (ছাত্র-কল্যাণ) মোঃ ওসমান গণি নাঈম। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন হলের হল প্রভোষ্ট ও সহকারী প্রভোষ্টবৃন্দ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকবৃন্দ কর্মকর্তাবৃন্দ কর্মচারীগণ এবং বিভিন্ন বিভাগ ও ব্যাচসহ ’১৫ ব্যাচের বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন। এসময় কুয়েটের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর বলেন উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে র‌্যাগিং নামক একটি অপসংস্কৃতি চালু হয়েছে। এতে নতুন শিক্ষার্থীরা মানসিক ও শারীরিকভাবে লাঞ্চিত হয়। বিষয়টি কারো কাম্য নয়। কুয়েট কর্তৃপক্ষ সবসময় এ বিষয়ে অত্যান্ত সহানুভূতিশীল। তিনি বলেন কুয়েটে র‌্যাগিং বলে কিছুই থাকবে না। র‌্যাগিং বন্ধে কুয়েট নজির সৃষ্টি করবে। তিঁনি আরো বলেন কারো দ্বারা কুয়েটের সুনাম নষ্ট হলে তাকে ক্ষমা করা হবে না। বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে র‌্যাগিংয়ের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণা করা হয়েছে। এর পরেও যেন কোন বিচ্ছিন্নœ ঘটনা না ঘটে। এর ধারাবাহিকতায় পরবর্তীতে কুয়েট যেন একটি র‌্যাগিং ফ্রি বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে পরিচিত হয়। সেজন্যই শিক্ষার্থীরা এমন একটি ব্যতিক্রমধর্মী উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। অনুষ্ঠানে শপথ ছাড়াও ’১৫ ব্যাচের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা আলাদাভাবে র‌্যাগিং না করার প্রতিজ্ঞাপত্র ভাইস-চ্যান্সেলর এর কাছে হস্তান্তর করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*