কুষ্টিয়ায় বিয়ের দাওয়াতকে কেন্দ্র করে আ.লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৫ ডিসেম্বর: কুষ্টিয়া সদরে বিয়ের দাওয়াত না দেওয়ায় আওয়ামী লীগের এক পক্ষ অপর পক্ষের ওপর হামলা চালিয়েছে। এসময় তারা কুপিয়ে সাইফুল নামে এক যুবককে হত্যা করে। নিহত সাইফুল ইসলাম (২০) কুমারগাড়া তাঁতীমারা এলাকার ছানোয়ার রহমানের ছেলে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো পাঁচজন। জড়িত সন্দেহে দুজনকে আটক করেছে পুলিশ। শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার জগতি ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শাহীন ও ইউপি সদস্য এনামুল হক এনামের সমর্থকদের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে।Kus
জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) প্রলয় চিসিম জানান, এ ঘটনায় গুরুতর আহত একই এলাকার আনাজ উদ্দিনের ছেলে পঞ্চাশোর্ধ্ব ইদবার আলী ও মনতাজ আলীর ছেলে আবদুল মজিদকে (৪৪) কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এলাকাবাসী জানান, উপজেলার জগতি ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শাহীন ও ইউপি সদস্য এনামুল হক এনামের মধ্যে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। এর সূত্র ধরেই একটি বিয়ের নিমন্ত্রণকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সমর্থকরা আজ সকালে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।
কুষ্টিয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এলাকাবাসীর বরাত দিয়ে বলেন, ‘একটি বিয়েতে সাবেক চেয়ারম্যান শাহীনের সমর্থকরা এনাম মেম্বারের লোকজনকে নিমন্ত্রণ দেয়নি। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে এনাম মেম্বারের সমর্থকরা বিয়েবাড়িতে গিয়ে প্রতিপক্ষের লোকজনের ওপর হামলা চালায়।’ এতে একজন নিহত ও কয়েকজন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দুজনকে আটক করা হয়েছে। নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানান ওসি। সূত্র: শীর্ষ নিউজ

Leave a Reply

%d bloggers like this: