কিশোরগঞ্জে কালবৈশাখী ঝড়ে বাবা-ছেলেসহ নিহত ৫

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : কালবৈশাখী ঝড়ে কিশোরগঞ্জের ৪ উপজেলায় গাছের নিচে চাপা পড়ে বাবা-ছেলেসহ ৫ জন নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় বাবা ছেলেসহ ২, কটিয়াদী, বাজিতপুর এবং কুলিয়ারচর উপজেলায় একজন করে ৩ জন মারা যান। নিহতদের মধ্যে ২ জন শিশু রয়েছে। Kal Baisakiশনিবার সন্ধ্যা থেকে রাত ১টার মধ্যে তারা মারা যান। এ ছাড়া এই ঝড়ে ভৈরব উপজেলায় কয়েকশ ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত ও বিধ্বস্ত হয়েছে। জানা যায়, পাকুন্দিয়া উপজেলার জাঙ্গালিয়া ইউনিয়নের কাজীহাটি গ্রামে রাত ১টার দিকে বয়ে যাওয়া ঝড়ে একটি রেইনট্রি গাছ একটি ঘরের চালার ওপর পড়ে। এ সময় গাছের চাপায় ঘরের ভেতর ঘুমন্ত অবস্থায় বাবা হযরত আলী (৩৫) এবং তার ৭ বছর বয়সী ছেলে রিজন মিয়ার মৃত্যু হয়। এ ছাড়া ঝড়ে কয়েকটি ঘর, সবজি ও ধানক্ষেত বিধ্বস্ত হয়েছে। কটিয়াদী উপজেলার মসূয়া ইউনিয়নের কাজীরচর গ্রামে রাত সাড়ে ১২টার দিকে গাছ চাপায় মারা যান আঃ মান্নান মিয়া (৬০)। ঝড়ে ঘরের চালায় গাছ পড়ে তিনি চাপা পড়েন। আহত অবস্থায় তাকে কটিয়াদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়ার পর তিনি মারা যান। কুলিয়ারচর উপজেলায় সন্ধ্যা ৭টার দিকে পৌর শহরের পৈলানপুর মহল্লায় মাছ বিক্রি করে সিএনজি চালিত অটোরিকশায় করে ফেরার পথে শীতল চন্দ্র বর্মণ (৩২) ঝড়ে একটি গাছের একটি অংশ ভেঙ্গে পড়ে। এতে তিনি ঘটনাস্থলেই মারা যান। ঝড়ে ওই উপজেলার ছয়সূতি বাসস্ট্যান্ডের প্রায় ২০টি ঘর বিধ্বস্ত হয়। বাজিতপুর উপজেলার দিলালপুর ইউনিয়নের তাতালচর গ্রামে সন্ধ্যায় ঝড়ের সময় রিমা আক্তার (১০) নামে এক শিশু দৌড়ে উঠান থেকে ঘরে ফেরার সময় গাছের একটি ডাল তার মাথায় পড়ে। তাকে আহত অবস্থায় প্রথমে বাজিতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে বাজিতপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে সে মারা যায়। এদিকে ভৈরব উপজেলার আগানগর, শিমুলকান্দি, শ্রীনগর ও সাদিকপুর ইউনিয়নের কালবৈশাখী ঝড়ে মসজিদ ও মাদ্রাসাসহ কয়েকশ ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত ও বিধ্বস্ত হয়েছে। ঝড়ে সাদিকপুর ইউনিয়নে মসজিদ, মাদ্রাসাসহ ২৫০ ঘরবাড়ি, আগানগর ইউনিয়নে লুন্দিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়, আয়েশা সিদ্দিকী মহিলা মাদ্রাসা ও লুন্দিয়া উত্তরপাড়া মসজিদসহ ১০০ ঘরবাড়ি এবং শ্রীনগর ইউনিয়নে দেড়শ ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। এতে এসব ইউনিয়নের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ প্রায় কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সূত্র : জাস্ট নিউজ

Leave a Reply

%d bloggers like this: